জমি আন্দোলনকে সম্মান জানাতে সিঙ্গুরে স্মারক তৈরির সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। এ জন্য টাকা বরাদ্দ হয়েছে এবং জমিও চিহ্নিত হয়েছে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রের খবর।

জেলা প্রশাসনের এক কর্তা জানান, স্মারক তৈরির জন্য সিঙ্গুরের সিংহের ভেড়ি মৌজায় এক বিঘা জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। বুধবারই রাজ্যের অর্থ দফতর থেকে এ জন্য প্রায় ছ’কোটি টাকা অনুমোদন করা হয়। হরিপালের তৃণমূল বিধায়ক তথা সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম মুখ বেচারাম মান্না বলেন, ‘‘প্রতিটি আন্দোলনেরই নিজস্ব স্মারক থাকে। সিঙ্গুরের মানুষ যে ভাবে কৃষিজমি বাঁচাতে জীবনপণ লড়াই করেছিলেন, তাকে কুর্নিশ জানাতে এই সরকারি উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার।’’

টাটাদের গাড়ি কারখানার জন্য কৃষিজমি অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে ২০০৬ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত আন্দোলনে উত্তাল হয়ে উঠেছিল সিঙ্গুর। খুন হয়েছিলেন তাপসী মালিক। আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিঙ্গুর আন্দোলনই মমতাকে বিরোধী নেত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রীর মসনদে পৌঁছে দেয় বলে মনে করেন অনেকে। মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য আগেই সিঙ্গুরে স্মারক তৈরির জন্য তাঁর ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন।

তবে, সরকারি এই সিদ্ধান্তকে চমক হিসেবেই দেখছে বিরোধী সিপিএম।