• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মারধরে যুবকের মৃত্যু, থানায় বিক্ষোভ

Protest
প্রতিবাদ: দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ থানায়। নিহত অমিত সর্দার (ইনসেটে) নিজস্ব চিত্র

রাস্তায় দু’পক্ষের বচসার জেরে বাইক আরোহী এক যুবককে মারধরের অভিযোগ উঠল। মারধরের জেরে মৃত্যু হয়েছে অমিত সর্দার (৩০) নামে ওই যুবকের। সোমবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে উলুবেড়িয়া বীরশিবপুর ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের সার্ভিস রোডে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় ব্যবসায়ী অমিত উলুবেড়িয়া চেকপোস্ট এলাকার বাসিন্দা। এ দিন দোল উপলক্ষে ছয় বন্ধু মিলে একটি অটো রিকশা ও একটি মোটর সাইকেল নিয়ে কুলগাছিয়া মহিষরেখায় দামোদর নদের চরে পিকনিক করতে গিয়েছিলেন। বিকেলে ফেরার পথে বীরশিবপুরে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের সার্ভিস রোডে কয়েকজন পথচারীর সঙ্গে বচসা বাধে। 

অমিতের বন্ধুরা জানান, অমিত ও তাঁর এক বন্ধু মোটর সাইকেলে করে জাতীয় সড়কের সার্ভিস রোড ধরে ফিরছিলেন। অমিতই বাইক চালাচ্ছিলেন।  বীরশিবপুরের কাছে আচমকা তিন-চারজন যুবক অমিতের পথ আটকায়। তাদের সঙ্গে বচসা বাধে অমিত ও তাঁর বন্ধুর। বচসার মধ্যেই ওই যুবকরা অমিতের গাড়ি ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ। পিছন থেকে একটি ভারি বস্তু দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাতও করা হয়। অমিত মাটিতে লুটিয়ে পড়েন । যুবকেরা বাইকে চড়ে পালায়। ততক্ষণে ঘটনাস্থলে চলে আসেন অমিতের অন্য বন্ধুরা। অমিতকে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে   চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে জানান।  

অমিতের মৃত্যুর খবর পেয়ে তাঁর প্রতিবেশিরা উলুবেড়িয়া থানায় গিয়ে দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করেন। রাত দশটা নাগাদ উলুবেড়িয়া থানার আইসি কৌশিক কুণ্ডু ও উলুবেড়িয়ার এসডিপিও পার্থ ঘোষ অমিতের বন্ধুদের নিয়ে ঘটনাস্থলে তদন্তে যান। দ্রুত দোষীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে বিক্ষোভ উঠে যায়। কিন্তু মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার না হওয়ায় ফের উলুবেড়িয়া থানা ঘেরাও করেন শ’খানেক গ্রামবাসী। থানার সামনে বসে পড়েন তাঁরা। মহিলারা হাতের চুড়ি খুলে থানায় ছুড়তে থাকেন। পুলিশ দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে গ্রামবাসীরা ফিরে যান। হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিশের এক কর্তা জানান, পুলিশ তদন্ত করছে। খুব শীঘ্রই দোষীদের গ্রেফতার করা হবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন