সদ্য দলে আসা পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষকে নিয়ে তবে কি বিজেপির ‘অস্বস্তি’ কাটছে না! বিজেপির জেলা পর্যবেক্ষকের পর দলের রাজ্য সভাপতির মন্তব্যেও তেমন ইঙ্গিত মিলছে।

সম্প্রতি দিল্লিতে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন প্রাক্তন আইপিএস ভারতী। এর পরেই বিজেপির পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পর্যবেক্ষক তুষার মুখোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘‘উনি (ভারতী) জেলার পুলিশ সুপার থাকাকালীন অনেক দুর্নীতি করেছিলেন। এ বার দলে এসেছেন। কার কথায় দুর্নীতি করেছিলেন সেটা জানতে চাইব।’’

রবিবার বিকেলে খড়্গপুরের শ্রীকৃষ্ণপুরে দলের একটি কার্যালয় উদ্বোধনে এসেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেই উদ্বোধনী সভামঞ্চে তিনি বলেন, ‘‘এখানে এক পুলিশ দিদি ছিলেন তাঁকে আমরা গালাগালি দিতাম। তিনি সাত ঘাটের জল খেয়ে এখন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।’’ এর পাশাপাশি তাঁর কটাক্ষ, দিদিকে যিনি ‘মা’ বলবেন, তাঁর সর্বনাশ হবে। প্রসঙ্গত, এক সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘জঙ্গলমহলের মা’ বলেছিলেন ভারতী। বিজেপির দাবি, এ দিন ১৭ জন তৃণমূল কর্মী তাদের দলে যোগ দিয়েছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একাধিক প্রসঙ্গে সমালোচনা করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। ভুয়ো অর্থলগ্নি সংস্থা নিয়ে সিবিআই তদন্তের প্রসঙ্গ তুলে দিলীপ বলেন, “দিদির নিজের ভাইরা যখন জেলে গেল তখন কষ্ট হল না। এখন সৎভাইকে সিবিআই ধরতে গেলে খুব কষ্ট হয়েছে। পুলিশ ভাই খুব আপন হয়েছে।” এরপরেই তিনি তুলেছেন ভারতী প্রসঙ্গ। 

তৃণমূলের পশ্চিম মেদিনীপুর সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, ‘‘মুকুল রায়, ভারতী ঘোষের মতো দুর্নীতিগ্রস্তদের নিয়ে দিলীপ ঘোষেরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করার কথা বলছেন। যাদের গায়ে দুর্নীতির দাগ লেগে আছে তাদের মুখে এ কথা মানায় না।’’