• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্ধ পুরসভার এটিএম, পানীয় জল পেতে হয়রানি

Water
প্রতীকী ছবি।

আমপানে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে পুরসভার পানীয় জল সরবরাহে সমস্যা দেখা দিয়েছে তমলুক শহরের বিভিন্ন এলাকায়। এই পরিস্থিতিতে শহরবাসীর অনেকেই পরিস্রুত পানীয় জলের জন্য ভরসা করছিলেন পুরসভা পরিচালিত ওয়াটার এটিএমগুলির উপরে। কিন্তু সোমবার পুরসভার চারটি ওয়াটার এটিএমের সবকটিই বন্ধ থাকায় জল নিতে এসে হয়রানির শিকার হন মানুষ। জল না পেয়েই ফিরতে হয় তাঁদের।

পুর কর্তৃপক্ষের দাবি, এদিন ইদের ছুটি থাকায় ওয়াটার এটিএম বন্ধ ছিল। আগাম নোটিস দিয়ে তা জানানোও হয়েছিল। পুরসভা ও স্থানীয় সূত্রের খবর, পুরএলাকায় বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি জল সরবরাহ ব্যবস্থা ছাড়াও রাস্তায় ট্যাপকল রয়েছে। প্রতিদিন সকাল, দুপুর ও বিকেলে নির্দিষ্ট সময়ে জল সরবরাহ করতে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ভূগর্ভস্থ জল তোলার পাম্পহাউস রয়েছে। এছাড়াও পুরসভার অফিস, সুবর্ণজয়ন্তী ভবন, কলেজপাড়া ও বৈকুণ্ঠ সরোবারের কাছে পুরসভা চালিত ওয়াটার এটিএম রয়েছে। সেখানে স্বল্পমূল্যে পানীয় জল কেনার ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু আমপানের জেরে গত বুধবার বিকেল থেকে শহরে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হওয়ায় পাম্প হাউসের মাধ্যমে জল সরবরাহে বিঘ্ন ঘটে। জেনারেটর দিয়ে পাম্পহাউস চালিয়ে জল সরবরাহ করা হলেও ট্যাপকলে জলের চাপ কম থাকায় বাসিন্দারা অসুবিধায় পড়েন।

 সোমবার অনেকেই ওয়াটার এটিএমে জল আনতে গিয়ে দেখেন সেগুলি বন্ধ। এই ঘটনায় ক্ষুদ্ধ বাসিন্দারা। স্থানীয় বাসিন্দা সুরজিৎ বেরার অভিযোগ, ‘‘এ দিন সকালে ওয়াটার এটিএমে জল আনতে গিয়ে দেখি সেটি বন্ধ। জল না পেয়ে ফিরে এসেছি। পানীয় জলের মতো গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবা কেন বন্ধ  ছিল বুঝতে জানি না।’’

পুরসভার প্রশাসক রবীন্দ্রনাথ সেন বলেন, ‘‘ওয়াটার এটিএমগুলিতে সারাদিন জল সরবরাহের জন্য তিনজন করে কর্মী থাকেন। ইদে তাঁদের ছুটি থাকায় এ দিন এটিএম বন্ধ ছিল। এবিষয়ে আগাম বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েও দেওয়া হয়েছিল। তবে মঙ্গলবার থেকে ওয়াটার এটিএম যথারীতি  খোলা থাকবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন