• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এইচপিএলে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ, জখম ৫

1
পড়ে রয়েছে দলীয় পতাকা।—নিজস্ব চিত্র।

দিন সাতেক আগেই কারখানায় তৃণমূলের শ্রমিক ইউনিয়নের গোষ্ঠী কোন্দল আটকাতে এক গুচ্ছ নির্দেশিকা দিয়েছিলেন তমলুকের সাংসদ শুভেন্দু অধিকারী। সেই নির্দেশের দিন চারেকের মধ্যেই তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিটিইউসির গোষ্ঠী কোন্দলে উত্তপ্ত হয়ে উঠল হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালস চত্বর। মঙ্গলবারের এই ঘটনায় দু’পক্ষের পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দু’পক্ষের দুজনকে হলদিয়া মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার সুকেশকুমার জৈন বলেন, ‘‘কারখানার সামনে দুপক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাদের সরিয়ে দিয়েছে।’’

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালসে আইএনটিটিইউসির দুটি ইউনিয়ন রয়েছে। কারখানার ন্যাশনালিস্ট ঠিকাশ্রমিক ইউনিয়ানের কার্যকরী সভাপতি  মিলন মণ্ডল আর কারখানার ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি আজিজুল রহমানের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে দ্বন্দ্ব রয়েছে। এ দিনের ঘটনার সূত্রপাত সোমবার রাতে। কারখানায় নিয়ন্ত্রণ কোন পক্ষের থাকবে, তা নিয়ে গণ্ডগোলের জেরে ওই দিন সন্ধ্যায় মিলন মণ্ডল গোষ্ঠীর লোকজন আজিজুল রহমান গোষ্ঠীর কর্মী মনোরঞ্জন মাজিকে মারধর করে বলে অভিযোগ। রাতেই মনোরঞ্জনবাবু ভবানীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। মঙ্গলবার সকালে কারখানার সামনে মনোরঞ্জনবাবু এলে তাঁকে ফের মিলন মণ্ডল গোষ্ঠীর লোকজন মারধর করে বলে অভিযোগ। সেই সময় বাধা দিতে গেলে দীপঙ্কর দাস, তাপল প্রধান-সহ আরও কয়েকজন আজিজুল রহমান গোষ্ঠীর কর্মীকে মারধর করা হয়।

হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালস ঠিকা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর দাসের কথায়, ‘‘এ দিন সিপিএম, নির্দল, বিজেপির লোকজনকে নিয়ে কয়েকজন কারখানার প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করেছিল। ওই সময় আমাদের লোকজন কারখানায় কাজ করতে গেলে তিনজনকে মারধর করে।’’ হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালস ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শেখ নুরুলউদ্দিন জানান, ‘‘ইউনিয়ন করার জন্য আমাদের সরকারি রেজিস্ট্রেশন রয়েছে। তাছাড়াও কারখানার অধিকাংশ কর্মী আমাদের পক্ষে।’’ এ বিষয়ে অবশ্য মিলন মণ্ডলের বক্তব্য, ‘‘আমাদের কোনও গোষ্ঠী কোন্দলের ঘটনা ঘটেনি। সিপিএম ও সিপিএমের মদতপুষ্ট কয়েকজন কারখনায় এসে ঝামেলা বাধিয়েছিল।’’ সিটুর হলদিয়া রিজিওনাল কমিটির সম্পাদক দেবেশ আদক বলেন, ‘‘এটা আইএটিটিইউসির দুই গোষ্ঠীর সমস্যা। আমাদের নামে মিথ্যে অভিযোগ করা হচ্ছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন