টিএমসিপি-এবিভিপি গোলমালে শনিবার ফের তেতে উঠল গড়বেতা কলেজ। আহত হয়েছেন ৪ জন ছাত্র। এবিভিপির দাবি, আহতেরা তাদের সমর্থক। খবর পেয়ে কলেজ ক্যাম্পাসের বাইরে পুলিশ আসে। তবে তারা ক্যাম্পাসে ঢোকেনি। টিএমসিপি ও এবিভিপি—দুই ছাত্র সংগঠনই একে ওপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে।  

কিছুদিন আগেই ওই কলেজে এবিভিপি-টিএমসিপি গোলমাল হয়েছিল। এ বার ফের অশান্তি। কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার। ওই দিন টিএমসিপি’র এক কর্মী এবিভিপিতে যোগ দেয়। তারপর কলেজ গেটের বাইরে মিছিল করে আরএসএসের ছাত্র সংগঠন। ক্যাম্পাসে পতাকা লাগায়। কলেজের এবিভিপি নেতা অভিজিৎ গড়াইয়ের দাবি, ‘‘শনিবার টিএমসিপি’র গুণ্ডাবাহিনী আমাদের পতাকা ছিঁড়ে লাঠি ও অস্ত্র নিয়ে আমাদের সমর্থকদের ওপরে হামলা চালায়। কলেজ কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতেই পুরো ঘটনা ঘটেছে।’’ এই ঘটনার পরে এবিভিপি’র জেলা সহ সংযোজক উজ্জ্বল ঘোষ গড়বেতায় আসেন। দুপুরে গড়বেতার বিবেক মোড়ে ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কে অবরোধ করে এবিভিপি। 

যদিও অভিযোগ মানেনি টিএমসিপি। ওই কলেজের টিএমসিপি নেতা মতিকুল্লা মণ্ডলের দাবি, ‘‘শনিবার কলেজে পতাকা বাঁধছিলাম। তখন এবিভিপি’র ৪-৫ জন এসে আমাকে ধাক্কা মারে। আমাদের কর্মীরা প্রতিবাদ করলে এবিভিপি বহিরাগত নিয়ে এসে  হামলা করেছে। ওদের কোনও কর্মীকেই মারা হয়নি।’’ 

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সুশীল বেরা বলেন, ‘‘এ দিন আমি ছিলাম না, কলেজে পরে এসেছি, ঠিক কি হয়েছে খোঁজ নিয়ে দেখছি।’’