দলের অন্দরে ‘দুর্যোগ’ চলছে। তা সামলাতে খড়্গপুরে আসার কথা ছিল বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের রেলশহরে কর্মিসভায় আসা হল না। তবে আজ, রবিবার খড়্গপুরে আসার কথা রয়েছে তৃণমূলের জেলা পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের জেরেই শনিবার খড়্গপুরে বিজেপি-র কর্মিসভা পুরোদমে হয়নি। কৈলাস বিজয়বর্গীয়, দিলীপ ঘোষ আসেননি। তবে ছিলেন বিজেপির রাজ্য নেতা সঞ্জয় সিংহ, তুষার মুখোপাধ্যায়, মধ্যপ্রদেশ থেকে নির্বাচনের দায়িত্বে আসা হুকুমচাঁদ গুপ্ত, জেলা সভাপতি শমিত দাসেরা। শমিত বলেন, “প্রাকৃতিক দুর্যোগে ওঁরা আসতে পারেননি। তবে কয়েকদিনের মধ্যে আসবেন বলে জানিয়েছেন।” ক্ষোভ মেটাতেই তো এই কর্মিসভা? এ বার শমিতের জবাব, “কর্মীদের মনে কোনও ক্ষোভ নেই। সামান্য যে ক্ষোভ ছিল সেটাও মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে।” 

বিজেপির জেলা সভাপতি শমিত অবশ্য কর্মিসভায় দ্বন্দ্ব মেটানোরই বার্তা দিয়েছেন। কর্মীদের উদ্দেশে তাঁর বার্তা, “আরে দাদা ঘরে থাকলে দু’ভাইয়ের ঝগড়া হয়। কিন্তু অপর এক ভাই বাইরে থেকে এসে আমাদের ভাইকে চোখ রাঙাবে তখন আমরা সব ভাই একসঙ্গে লড়ব।” সঙ্গে তাঁর হুঁশিয়ারি, “তৃণমূল ও প্রশাসন মনে রাখবেন, বাইরের কেউ এসে আমাদের অপমানিত করতে চাইলে সেই হাত ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা আমাদের আছে।” অযোধ্যার রামমন্দির নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়কে সামনে এনেও কর্মীদের উজ্জীবিত করার চেষ্টা করেছেন বিজেপির নেতারা। অযোধ্যা মামলার রায়ের প্রভাব এই উপ-নির্বাচনে পড়বে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন। বিজেপির জেলা সভাপতির কথায়, “রামরাজ্য স্থাপনে এই খড়্গপুর দিশা দেখিয়েছে। আগামী দিনেও দেখাবে।” বিজেপি নেতৃত্বের ব্যাখ্যা, বিধানসভা উপ-নির্বাচনের ফল রামচন্দ্র লিখে দিয়েছেন— বিধায়কের নাম প্রেমচন্দ্র ঝা। 

তৃণমূল অবশ্য ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। সেই লক্ষ্যপূরণে বারবার রেলশহরে আসছেন তৃণমূলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। আজ, রবিবার খড়্গপুরের নিমপুরা ও ইন্দায় সভা করার কথা শুভেন্দুর। দুর্যোগে তৃণমূলের সভা যাতে ভেস্তে না যায়, সে জন্য কমিউনিটি হল ভাড়া নেওয়া হয়েছে। বিজেপিকে বিঁধে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতির বক্তব্য, “প্রাকৃতিক দুর্যোগ নয়, বিজেপির ঘরের দুর্যোগ আঁচ করতে পেরেই কৈলাস বিজয়বর্গীয় আসেননি। বিজেপি এ ভাবেই হারিয়ে যাবে। আমরা জিতব। সেই জয় নিশ্চিত করতেই দুর্যোগের মধ্যেও শুভেন্দু অধিকারী আসবেন।”