সড়ক সংস্কার হয়েছে। সঙ্গে হয়েছে নতুন সেতু। তবে পুরনো সেতুও রয়েছে। অভিযোগ, নতুন সেতুর নকশার ভুলে বিভ্রান্ত হচ্ছেন বাইক ও গাড়ি চালকেরা। তাতেই দুর্ঘটনাপ্রবণ হয়ে উঠছে ডেবরা-সবং রাজ্য সড়কের মাঝে বালিচকের গোদাবাজার এলাকা। দ্রুত নতুন সেতুতে উঠতে গিয়ে শনিবার রাতে ট্রাকের ধাক্কায় বাইক আরোহী এক যুবকের মৃত্যুর পরে ফের সামনে এসেছে ওই নকশার বিষয়টি। তার প্রতিবাদে রাতেই বেশ কিছুক্ষণের জন্য পথ অবরোধও করেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ উঠে যায়।

দুর্ঘটনায় মৃত শুভেন্দু বেরা (৩৪)-র বাড়ি পিংলার মুণ্ডমারিতে। বাইকে বালিচক থেকে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। দুর্ঘটনার পরেই ট্রাকটি পালিয়েছে বলে পুলিশ জানায়। 

ডেবরা-সবং সড়ক সংস্কারের পরে নতুনভাবে চালু হয়েছে ২০১৪ সালে। সম্প্রসারিত সড়কে বেশ কয়েকটি নতুন সেতু সংযুক্ত করা হয়। পরে দেখা যায় গোদাবাজারের এই সেতুর কাছে ক্রমেই বাড়ছে দুর্ঘটনা। কারণ খুঁজতে গিয়ে দেখা যায়, নতুন সেতুটি সড়কের সঙ্গে প্রায় ৬০ডিগ্রি কোণে থাকায় চট করে গাড়ি-বাইক ঘোরাতে হচ্ছে চালকদের। তাছাড়া সেতুতে ওঠার মুখে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার রাস্তা মিলেছে। ফলে, দুর্ঘটনা বাড়ছে। কখনও ট্রাকের ধাক্কায়, কখনও সেতু বাছতে গিয়ে খালে পড়ে মৃত্যু হচ্ছে বাইক আরোহীদের। গত ১৯ মার্চ ডেবরার এক যুবক খালে পড়েই মারা যান। 

স্থানীয় নইম ইসলাম, হুমায়ুন কবীর বলেন, “এই নিয়ে প্রায় ১০-১২টি দুর্ঘটনা ঘটল। নতুন সেতুর নকশার গলদেই এখন দুর্ঘটনা হচ্ছে।” 

দুর্ঘটনার পরে এ দিন ওই এলাকায় পুলিশ ও বিদ্যুৎ দফতরের উদ্যোগে দু’টি আলো বসানো হয়েছে। দেওয়া হয়েছে গার্ডরেল, মোতায়েন হয়েছে সিভিক ভলেন্টিয়ার। সড়কের ধারে জঙ্গল পরিষ্কার করা হবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।