• সামসুদ্দিন বিশ্বাস
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সার্বিক ফলেও সফল জেলা

main
মোবাইলের নেট দেখে পরীক্ষার ফল জানার চেষ্টা। নিজস্ব চিত্র

রাজ্যের অন্য জেলার সঙ্গে মুর্শিদাবাদও উচ্চ মাধ্যমিকে সাফল্য পেল। অনুমান করা হচ্ছে, জেলার পাশের হার ৯০ শতাংশের উপরে। 

পরীক্ষার ১১৮দিন পরে শুক্রবার উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে মুর্শিদাবাদ উচ্চ মাধ্যমিকে সাফল্য পেয়েছে। সূত্রের খবর, বিগত তিন বছরে উচ্চ মাধ্যমিকে পাশের হার ৮১-৮৩শতাংশের আশপাশে ঘোরাফেরা করেছে। সেখানে এবারে সম্ভবত ৯০ শতাংশের উপরে জেলার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা পাশ করেছে।

মেধা তালিকা প্রকাশ না করলেও রঘুনাথগঞ্জের জোতকমল হাইস্কুলের ছাত্রী স্বাগতা দাসকে মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে শংসাপত্র পাঠানো হয়েছে। স্বাগতা ৫০০ নম্বরের মধ্যে ৪৯৪ নম্বর পেয়ে রাজ্যে সম্ভাব্য ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে। মুর্শিদাবাদের জেলা স্কুল পরিদর্শক (মাধ্যমিক) অমরকুমার শীল বলেন, ‘‘এ বারে মেধা তালিকা প্রকাশ হয়নি। তবে স্বাগতাকে সংবর্ধনা জানানোর জন্য রাজ্য থেকে মুখ্যমন্ত্রীর শংসাপত্র পাঠানো হয়েছে। এদিন তার হাতে সেই শংসাপত্র তুলে দেওয়া হয়েছে।’’

জেলা শিক্ষা দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এবছর ১২মার্চ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। ২৭মার্চ পর্যন্ত ১০দিন ধরে ৩৭টি বিষয়ে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে লকডাউনের জেরে ২১ মার্চ পর্যন্ত উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা হয়। বাকি থেকে যায় ২৩, ২৫ ও ২৭মার্চ পর্যন্ত তিনদিনের ১৪টি বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে বাকি থাকা পরীক্ষাগুলি নেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় পরীক্ষা নেওয়া যায়নি। ফলে অনেক পড়ুয়া দু’টি বা তিনটি করে বিষয়ে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পায়নি। পরীক্ষা দেওয়া বিষয়গুলির মধ্যে যে বিষয়ে সব থেকে বেশি নম্বর পেয়েছে, সেই নম্বর পরীক্ষা দিতে বাকি থাকা বিষয়ে যুক্ত করে ফল প্রকাশ করা হয়েছে। পরীক্ষা দেওয়া বিষয়গুলির মধ্যে যে বিষয়ে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে, সেই নম্বর বাকি থাকা বিষয়ের গড় নম্বর হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন