আগামী রবিবার ইসলামপুর বিধানসভার উপনির্বাচন। নির্বাচনের দু’দিন আগেই প্রচার বন্ধ হবে। কাজেই প্রচারের জন্য প্রার্থীদের হাতে আর মাত্র পাঁচটি দিন। তার মধ্যে সমস্ত এলাকায় মানুষের দরবারে পৌঁছতে হবে প্রত্যেককেই। এরই মাঝে রমজান মাস পড়ে যাওয়ায় প্রচারে অনেকটাই চাপের মুখে পড়তে হচ্ছে প্রার্থীদেরও। তাই রবিবার ছুটির দিনে  জোরদার প্রচারের ছবি  দেখা গেল ইসলামপুরে। 

কংগ্রেস প্রার্থী হাজি মুজফ্ফর হোসেন কয়েক বার ইসলামপুর পুরসভার কাউন্সিলর হয়েছেন। ইসলামপুর পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি। এ বার প্রার্থী হওয়ার পর থেকে জোরদার প্রচারে নেমেছেন তিনিও। এ দিন ইসলামপুর পুর এলাকার মিলনপল্লি, বাজার, সোনখোদা, জীবন মোড়-সহ বেশ কিছু  এলাকায় প্রচার করেন তিনি। তার সঙ্গে প্রচারে ছিলেন লোক আদালতের তৃতীয় লিঙ্গের কয়েক বারের সদস্য বিচারক জয়িতা মণ্ডল (মাহি)। মুজফ্ফর হোসেনকে ভোট দেওয়ার জন্য এলাকার বাসিন্দাদের আবেদন করেন জয়িতা। 

অপর দিকে,  এ দিন তৃণমূলের প্রার্থী আব্দুল করিম চৌধুরী  অগডিমঠি খুন্তি এলাকায় হুডখোলা গাড়িতে প্রচার করেন। এ দিনও তাঁর সঙ্গে ছিলেন ইসলামপুর পুরসভার চেয়ারম্যান তথা  সদ্যবিদায়ী বিধায়ক কানাইয়ালাল আগরওয়াল। প্রার্থী পাটাগোড়া এলাকায় পৌঁছতেই সেখানে তাকে বরণ করে নেন ইসলামপুর ব্লক  সভাপতি জাকির হুসেন। ওই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার মৌলানি পাটাগোড়া-সহ বেশ কিছু এলাকায় প্রচার করেন প্রার্থী। প্রার্থী করিম চৌধুরীর ছোট ছেলে ইমদাদ চৌধুরী বলেন,  ‘‘লাগাতার প্রচার চলছে বিভিন্ন এলাকায়। এ দিনও এলাকার কর্মীদের নিয়ে হুডখোলা গাড়িতে প্রচার ছিল।’’

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

এ দিন সিপিএমের প্রার্থী ইসলামপুরের বিভিন্ন এলাকায় প্রচার করেন। সকালে মাঠেকুন্ডা ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রচার ছিল প্রার্থীর। বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করেন তিনি। দুপুরে নিখিল বঙ্গ প্রাইমারি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনী প্রচারকে কেন্দ্র করে আয়োজিত সভায় যোগ দেন প্রার্থী শান্তিপ্রকাশ গুহ নিয়োগী (স্বপন)। যদিও তাদের মিছিলে ছিলেন না প্রার্থী। বিকেলে ইসলামপুরের শ্রীকৃষ্ণপুর এলাকায় প্রচার করেন সিপিএম প্রার্থী। 

দিনভর ইসলামপুর শহরের বিভিন্ন এলাকায় প্রচার ছিল বিজেপির। এদিন সকালে ইসলামপুর শহরের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে  বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করেন তিনি। বিকেলে প্রচার করেন ইসলামপুর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ডে। বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ সেন বলেন,  নির্বাচনী প্রচারে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করছেন প্রার্থী। এলাকার মানুষের সমর্থন  রয়েছে। ছুটির দিনে এই প্রচার একটা অন্য মাত্রা এনে দিয়েছে  ইসলামপরে।