• কিশোর সাহা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

তরাইয়ে বিশিষ্ট জন বাছাই শুরু

Dooars

পঞ্চায়েত ভোটের খুব দেরি নেই। তার আগেই তরাই-ডুয়ার্সের নেপালিভাষিরা পৃথক বোর্ড গঠনের জন্য আর্জি জানিয়েছেন রাজ্য সরকারের কাছে। সরকারি সূত্রের খবর, দ্রুত নতুন বোর্ড গড়তে না পারলেও পাহাড়ের পুরানো ১৫টি বোর্ড ও তরাই-ডুয়ার্সের ২টি টাস্ক ফোর্সে তরাই-ডুয়ার্স থেকে প্রতিনিধি রাখা হবে। সেই মতো নানা সম্প্রদায়ের বিশিষ্টজনদের বাছাই শুরু হয়েছে।

সরকারি সূত্রেই জানা গিয়েছে, একদিকে, তরাই-ডুয়ার্সে বসবাসকারী পাহাড়ের নানা জনজাতি লেপচা, তামাঙ্গ, গুরুঙ্গ, দামাই, কামি ইত্যাদিদের প্রতিনিধি বোর্ডে রাখা হবে। সেই সঙ্গে, তরাই-ডুয়ার্সের গোর্খা টাস্ক ফোর্স, আদিবাসী টাস্ক ফোর্সেও নতুন প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত করার কাজও শুরু হয়েছে। ডুয়ার্সের মোর্চার প্রথম সারির যে নেতারা সম্প্রতি তৃণমূলে সামিল হয়েছেন, তাঁদেরও উন্নয়ন বোর্ডে যুক্ত করা হবে বলে আশা করছেন অনেকে। একদা মোর্চার ডুয়ার্সের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা সন্দীপ ছেত্রী দু’সপ্তাহ আগে তৃণমূলের আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ির পর্যবেক্ষক তথা পূর্তমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের হাত ধরে শাসক দলে যোগ দিয়েছেন। সন্দীপবাবুরও ধারণা, তরাই-ডুয়ার্সের নেপালিভাষিদের উন্নয়নের জন্য কিছু করার সুযোগ তাঁরা পাবেন। তাঁরা অবশ্য তরাই-ডুয়ার্সের নেপালিভাষিদের জন্য পৃথক উন্নয়ন বোর্ড চান।

তবে এক সরকারি কর্তা জানান, ইতিমধ্যেই পাহাড়ে ১৫টি বোর্ড তৈরি করা হয়েছে। সমতলেও দু’টি টাস্ক ফোর্স রয়েছে। ৫টি ভাষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক উন্নয়ন বোর্ডও গড়া হয়েছে। প্রতি ক্ষেত্রেই সরকারকে অর্থ বরাদ্দ করতে হয়। সে জন্য নতুন বোর্ড গঠনের আগে সরকারকে সে কথা মাথায় রাখতে হচ্ছে বলে ওই কর্তা জানান। তাই আগে গঠিত বোর্ডগুলিতে সমতলের প্রতিনিধিদের মনোনীত করে তরাই-ডুয়ার্সের দায়িত্ব দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলেও সরকারি সূত্রেই দাবি করা হয়েছে।

পাহাড়ে জিটিএ কিংবা দ্বিস্তর পঞ্চায়েত ভোট কবে হবে, তা অনিশ্চিত।

কিন্তু, তরাই-ডুয়ার্সের প্রায় সর্বত্র রাজ্যের বাকি অংশের সঙ্গে পঞ্চায়েত ভোট হতে পারে। ভোটের কথা মাথায় রেখেই তরাই-ডুয়ার্সেও বোর্ড গড়ে বিভাজনের রাজনীতি চেষ্টা হচ্ছে বলে বিরোধীরা অভিযোগ করেছেন। বিজেপির তরাইয়ের যুব নেতা তথা সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ রাযচৌধুরীর অভিযোগ, পাহাড়ে বোর্ড গড়ে আদতে কী হয়েছে, তা গত চার মাস ধরে রাজ্যবাসী দেখছেন। তিনি বলেন, ‘‘যে কোনও উন্নয়নের প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানাব। তবে পঞ্চায়েত ভোটের আগে উন্নয়নের নামে বিভাজনের চেষ্টা হলে সরব হব।’’

তৃণমূলের তরাই-ডুয়ার্স শাখার নেতা-কর্মীরা অবশ্য পঞ্চায়েতের আগে তরাই-ডুয়ার্সের মোর্চার সিংহভাগকে আরও কাছে টানতে মরিয়া। ইতিমধ্যেই নেতাদের তরফেও নানা এলাকা থেকে বাছাই বিশিষ্ট ও প্রভাবশালী নেপালিভাষিদের নাম প্রদেশ নেতৃত্বকে জানানো হয়েছে। দলের জেলা নেতারা অবশ্য কোনও মন্তব্য করতে চাননি। তৃণমূলের জেলা নেতাদের কয়েকজন জানান, সরকারি স্তরে নানা বোর্ডের প্রতিনিধি বাছাইয়ের প্রক্রিয়া নিয়ে কোনও মন্তব্য করা ঠিক হবে না। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন