• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মন্ত্রী-মেয়র করোনা-বৈঠক

Meeting
বৈঠক: আলোচনায় মন্ত্রী, মেয়র ও পুরসভার বিরোধী নেতা।

করোনা পরিস্থিতিতে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল এবং উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপর অন্যান্য রোগীর চাপ কমাতে শিলিগুড়ি পুরসভার স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলিতে চিকিৎসক পাঠানোর ভাবনাচিন্তা করছে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ)। পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব এবং মেয়র অশোক ভট্টাচার্য বৈঠক করে ওই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার শিলিগুড়ি পুরসভায় গিয়ে মেয়রের সঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দিতে আলোচনা করেন পর্যটনমন্ত্রী। তার আগে সকালে ফোনেও মেয়রের সঙ্গে এক দফায় কথা বলেন তিনি। 

পর্যটনমন্ত্রী বলেন, ‘‘একসঙ্গে মিলে এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে। প্রথামিক ভাবে ঠিক হয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে হাসপাতালগুলির উপর চাপ কমাতে পুরসভার ১০টি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসক দিয়ে সাহায্য করবে আইএমএ। তাঁরা বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার প্রাথমিক দিকটা দেখবেন। তাঁদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। তাঁরা আলোচনা করে সংগঠনের তরফ থেকে কেন্দ্রগুলিতে এক এক দিন এক এক জন ডাক্তার পাঠাবেন।’’ তখন ঠিক হয়েছিল, বুধবার আইএমএ শিলিগুড়ি শাখার সঙ্গে পুরসভার বৈঠক হবে। পরে মেয়র জানান, তাঁদের হাতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি না থাকায় এখনই তাঁরা আইএমএ-র সঙ্গে বসছেন না। সময় হলেই বৈঠকে বসবেন। 

পুরসভার ৫০টি সাব সেন্টার রয়েছে। চিকিৎসক পেলে সেগুলিকেও কাজে লাগানো যেতে পারে বলে মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে মেয়র জানান। পরিস্থিতির কথা ভেবে পুরসভার তরফে একট মেডিক্যাল টিমও করা হবে আইএমএ’র চিকিৎসকদের রেখে। পরে মেয়র বলেন, ‘‘এখন সঙ্কীর্ণ রাজনীতির সময় নয়। সকলকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।’’

পুরসভার সাফাই কর্মী যাঁরা জরুরি পরিষেবা দিচ্ছেন, তাঁদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও মন্ত্রী কথা বলেন মেয়রে সঙ্গে। মন্ত্রী জানান, এই পরিস্থিতিতে সাফাইয়ের পরিষেবা পুরসভা দেখছে। সাফাই কর্মীদের মাস্ক, গ্লাভস, স্যানিটাইজ়ার যাতে দেওয়া হয়, তা দেখা হবে। নিজস্ব চিত্র

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন