• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জেলায় সংক্রমণ আরও ৮ শ্রমিকের

corona
প্রতীকী ছবি

উত্তর দিনাজপুরে করোনায় আক্রান্ত হলেন আরও আট জন। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, রবিবার মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কাছে ওই আট জনের করোনা পরীক্ষার পজ়িটিভ রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে। তবে আক্রান্তদের বাড়ি জেলার কোন এলাকায়, তা জানাননি জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা। স্বাস্থ্য দফতরের দাবি, এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ২২৩।

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধানের বক্তব্য, আইসিএমআরের নিয়ম মেনে জেলায় করোনা মোকাবিলা ও চিকিৎসার কাজ চলছে। নতুন আক্রান্ত ওই আট জনের চিকিৎসার ক্ষেত্রেও আইসিএমআরের গাইডলাইন মেনে চলা হচ্ছে।

জেলা স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিকের দাবি, ওই আট জন ভিন্ রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করতেন। তিন সপ্তাহ আগে তাঁরা বাড়ি ফেরেন। ২০-২২ দিন আগে জেলা স্বাস্থ্য দফতর তাঁদের লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠায়। লালারস সংগ্রহের পর থেকে তাঁদের মধ্যে করোনার কোনও উপসর্গ মেলেনি। সকলেই হোম কোয়রান্টিনে রয়েছেন। সুস্থ থাকায় তাঁদের কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করানোর ব্যাপারে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

জেলা স্বাস্থ্য দফতরের অন্য এক কর্তার দাবি, নতুন আক্রান্তদের নিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়াতে পারে। সেই কারণে তাঁরা জেলার কোন এলাকার বাসিন্দা তা গোপন রাখা হয়েছে।

অন্য দিকে, এ দিন রায়গঞ্জে জেলা বিজেপি কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠকে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার দাবি করেন, প্রথম থেকেই রাজ্য সরকারের তরফে দেওয়া দুই দিনাজপুর-সহ গোটা রাজ্যের করোনা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যে অসঙ্গতি দেখা যাচ্ছে। পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরলেও তাঁদের অনেককে লালারস পরীক্ষার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত সরকারি কোয়রান্টিনে রাখা হয়নি।

তৃণমুলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, উনি জেলা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। এখানে রাজনীতি করার জন্যে এ সব কথা বলছেন। তৃণমুলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, উনি জেলা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। এখানে রাজনীতি করার জন্যে এ সব কথা বলছেন। তৃণমুলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, উনি জেলা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। এখানে রাজনীতি করার জন্যে এ সব কথা বলছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন