• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সংক্রমণ নিয়ে মৃত্যু ৭ জনের

COVID-19 TEST
—ফাইল চিত্র।

দ্বিতীয় বার কোভিড হাসপাতালে ভর্তি হওয়া শিলিগুড়ির বাসিন্দা এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাতে কাওয়াখালির কোভিড হাসপাতালে তিনি মারা যান। পরিবার এবং হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ২৮ জুলাই শিলিগুড়ির সূর্যসেন কলোনির বাসিন্দা ৬৬ বছরের ওই বৃদ্ধের লালারসের রিপোর্ট পজ়িটিভ আসায় তাঁকে কাওয়াখালির কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। ২ অগস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তাঁকে ছুটি দেওয়া হয়। ৪ অগস্ট শ্বাসকষ্ট শুরু হলে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে ফের লালারস পরীক্ষা করে রিপোর্ট পজিটিভ এলে ৬ অগস্ট তাঁকে কাওয়াখালির হাসপাতালে আবার ভর্তি করানো হয়। ৭ অগস্ট রাতে তিনি মারা যান। দার্জিলিং জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রলয় আচার্য বলেন, ‘‘এ ধরনের ঘটনা আরও ভিন্ন  জায়গায় নজরে আসছে। বিষয়টি নথিভুক্ত করে পরীক্ষা নিরীক্ষা করেই ঠিক কী হয়েছে বলা সম্ভব।’’ 

শুক্রবার রাত থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার সংক্রমণ নিয়ে চিকিৎসাধীন সাত জনের মৃত্যু হয়েছে শিলিগুড়িতে। সেবক রোডের একটি নার্সিংহোমে করোনার সংক্রমণ নিয়ে ভর্তি এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তাঁর বাড়ি বীরপাড়ায়। পরিবারের লোকেরা দাবি করেন মৃতের নমুনা পরীক্ষা করাতে হবে। তা নিয়ে গোলমাল বাঁধলে পুলিশ যায়। নার্সিংহোমের তরফেও প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। রাত পর্যন্ত প্রশাসনের তরফে দাহকাজ করা যেতে পারেনি। 

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, শিলিগুড়ি পুরসভার ৫ ওয়ার্ডের এক বৃদ্ধা, রবীন্দ্রসরণির বাসিন্দা ৬৫ বছরের এক ব্যক্তি, ইসলামপুরের বাসিন্দা ৫০ বছরের এক ব্যক্তি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে মারা যান। তাঁদের রিপোর্ট পজ়িটিভ। মেডিক্যালে মারা গিয়েছেন পূর্ণিয়ার বাসিন্দা ২৪ বছরের এক মহিলা। তাঁর লালারসের রিপোর্ট শনিবার রাত পর্যন্ত মেলেনি।  কাওয়াখালির কোভিড হাসপাতালে মালবাজারের মানাবাড়ি বস্তির এক বাসিন্দা, নকশালবাড়ির বেলগাছি চা বাগানের এক বাসিন্দা মারা গিয়েছেন।

শিলিগুড়ি পুর এলাকায় নতুন করে ২৩ জনের সংক্রমণ মিলেছে। শিলিগুড়ি মহকুমা তথা দার্জিলিং জেলায় আরও ৪৩ জন আক্রান্ত।

 

(জরুরি ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কয়েকটি বিশেষ হেল্পলাইন চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এই হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা নিয়ে সহায়তা মিলবে। পাশাপাশি থাকছে একটি সার্বিক হেল্পলাইন নম্বরও।

• সার্বিক হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২
• টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১
• কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন