• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পঞ্চায়েতে তৃণমূলের পাশেই মোর্চা

GJM

আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলকে সমর্থনের ঘোষণা করল গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ডুয়ার্সের বাগরাকোটে মোর্চার কোর কমিটি এবং ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের পর ওই সিদ্ধান্তের ঘোষণা করেছেন সভাপতি বিনয় তামাঙ্গ। দলীয় সূত্রের খবর, বৈঠকের আগে মংপঙে মোর্চা সভাপতির সঙ্গে বৈঠক করেন তৃণমূলের জলপাইগুড়ির জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী। তার পর বাগরাকোটের বৈঠকে তৃণমূলের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা হয়েছে।

আপাতত ঠিক হয়েছে, জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ার জেলার বিস্তৃর্ণ এলাকায় নিজেদের শক্ত ঘাঁটিগুলিতে মোর্চার প্রার্থীরা নির্দল হিসেবে দাঁড়াবেন। তৃণমূলকে তাঁরা সমর্থনের জন্য বলেছেন। বাকি সমস্ত এলাকায় তৃণমূল প্রার্থীদের সমর্থন করবে মোর্চা।

মোর্চা সভাপতি বিনয় তামাঙ্গ বলেন, ‘‘সমতলের নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক হয়েছে। দলের কোর কমিটিও তৃণমূলের সঙ্গে সমঝোতার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তৃণমূল নেতৃত্বকে আমরা সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছি।’’ তিনি জানান, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্যের পঞ্চায়েত স্তর থেকে উন্নয়নের কাজ চলছে। পাহাড়ে শান্তি ফিরেছে। এই ধারাকে বজায় রাখার জন্য আমরা সর্বসম্মতিক্রমে তৃণমূলের পাশে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

মোর্চা সূত্রের খবর, জলপাইগুড়ি ও আলিপুরদুয়ার জেলার চা বাগানগুলিতে মোর্চার সংগঠন রয়েছে। বাগরাকোট, মাদারিহাট, বীরপাড়া, জয়গাঁ, কালচিনি, চামূর্চি এবং জয়গাঁর মত এলাকায় গত পঞ্চায়েত নিবার্চনেও মোর্চার একাধিক প্রার্থী পঞ্চায়েত স্তরের নির্বাচনে জিতেছিলেন।

নেপালি ভাষাভাষি এলাকা এবং গোর্খা অধ্যুষিত এলাকায় বরবার মোর্চার সংগঠন রয়েছে। সেখানেই প্রার্থী দাঁড় করাতে চাইছেন মোর্চা নেতৃত্ব। এক সময় ভোটের আগে বিমল গুরুঙ্গ ওই সমস্ত এলাকাগুলিতে ঘাঁটি গেড়ে থাকতেন। এ দিন বিনয় তামাঙ্গ দলীয় নেতাদের স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ করে ময়দানে নেমে পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

গতকালই কামতাপুর প্রোগ্রেসিভ পার্টির তরফে অতুল রায় তৃণমূলকে সমর্থনের কথা বলেছেন। কয়েকদিন আগে আদিবাসী বিকাশ পরিষদের নেতা বিরসা তিরকেও শাসক দলের সঙ্গে আছেন বলে জানিয়েছেন। আদিবাসী, রাজবংশীদের পর এ দিন গোর্খা বা নেপালি ভাষাভাষিরাও তৃণমূলের পাশে থাকার ঘোষণা করল। তৃণমূলের জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘বিনয় তামাঙ্গের সঙ্গে আমার বৈঠক হয়েছে। ওদের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছি। রাজ্য নেতৃত্বকে সব জানিয়েছি। সেখানকার নির্দেশ পেলেই দুই তরফে ভোটের কাজ শুরু হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন