• নীহার বিশ্বাস 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঘরে পৌঁছয়নি জল, নালিশ

water
প্রতীকী ছবি

প্রতিশ্রুতি ছিল, ভোটের চার মাস পরেই বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। অভিযোগ, সেই পুরবোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে ফের নির্বাচনের সময় এগিয়ে এলেও এখনও নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পালন করতে পারেনি তৃণমূল। গঙ্গারামপুর পুরসভায় শুরুই হয়নি বাড়ি বাড়ি জল সরবরাহ প্রকল্পের কাজ। আসন্ন পুর-নির্বাচনে সে কথাই হাতিয়ার করে ময়দানে নামছে বিরোধীরা।

২০১৫ সালে গঙ্গারামপুর পুরসভায় নির্বাচন হয়। শহরবাসীর একাংশের দাবি, সেই নির্বাচনের সময় তৃণমূলের প্রতিশ্রুতি ছিল, বাড়ি বাড়ি পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়া হবে। বিরোধীদের অভিযোগ, সেই প্রতিশ্রুতির উপরে ভর করেই ক্ষমতায় এসেছিল তৃণমূল।

গঙ্গারামপুরের সিপিএম নেতা অচিন্ত্য চক্রবর্তী বলেন, ‘‘তৃণমূলের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিতে এক নম্বরে ছিল বাড়ি বাড়ি জল পৌঁছে দেওয়ার কাজ। কিন্তু এখনও তা পূরণ করা হয়নি। শুধু তা-ই নয়, শহরের নাগরিক অনেক পরিষেবাই শুরু করতে পারেনি এই পুরবোর্ড।’’ বিজেপি নেতা মানস সরকার বলেন, ‘‘তৃণমূল শুধু মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে মানুষকে ঠকিয়ে ক্ষমতায় এসেছে। গঙ্গারামপুরের মানুষ সেটা বুঝতে পারছেন। ক্ষমতায় থেকেও এত বছরে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পানীয় জল প্রকল্পের কাজ তারা শুরু করতে পারেনি।’’

অভিযোগ মানতে চায়নি তৃণমূলের পুরবোর্ড। পুর-কর্তৃপক্ষের দাবি, সম্প্রতি তাঁরা ওই কাজ চালু করতে ‘ডিপিআর’ পুর দফতরে পাঠিয়েছে। পুনভর্বা নদী থেকে জল তুলে তা পরিস্রুত করে পাইপলাইনের মাধ্যমে শহরের প্রতিটি বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে। সে জন্য প্রায় ৪৬ কোটি টাকার প্রকল্প রিপোর্ট তৈরি করেছে পুরসভা। দফতরের অনুমোদন মিললেই কাজ শুরু হবে বলে তাঁদের দাবি। প্রাক্তন পুরপ্রধান তথা অধুনা বিজেপি নেতা প্রশান্ত মিত্রের বিরুদ্ধে এই কাজ না করার অভিযোগ তুলে দায় ঝেড়েছে তৃণমূল। 

উপপুরপ্রধান রাকেশ পণ্ডিত বলেন, ‘‘এই কাজ অনেক আগেই হয়ে যেত। কিন্তু আগের পুরপ্রধান কেন এটা করেননি তার উত্তর তিনিই দিতে পারবেন।’’

এ বিষয়ে প্রশান্তের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন