উপনির্বাচনের প্রচারে এনআরসি প্রসঙ্গে গুরুত্ব দিলেন রাজ্যের অনগ্রসর কল্যাণ ও আদিবাসী উন্নয়নমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও। বৃহস্পতিবার তৃণমূল প্রার্থী তপন দেবসিংহের সমর্থনে কালিয়াগঞ্জের একাধিক পঞ্চায়েতে প্রচার চালান তিনি। সঙ্গে ছিলেন উত্তরপাড়ার বিধায়ক প্রবীর ঘোষালও। এ দিন রাজীব কোথাও তপনকে পাশে নিয়ে হুডখোলা গাড়িতে রোড শো করেন। কোথাও পদযাত্রা করেন। জনসভা ও কর্মিসভাও করেন।

মন্ত্রী দাবি করেন, ‘‘লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি মানুষকে ভুল বুঝিয়ে ভোট নিয়েছিল। সাধারণ মানুষের কাছে বিজেপির মুখোশ খুলে গিয়েছে। তাই এনআরসির প্রতিবাদে ও উন্নয়নের স্বার্থে মানুষের ভোটে কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচনে তৃণমূলই জয়ী হবে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘তৃণমূল ক্ষমতায় থাকাকালীন এ রাজ্যে এনআরসি কার্যকর হতে দেবে না। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আপনাদের সুরক্ষায় সব সময় সতর্ক রয়েছেন।’’

এ দিন বেলা ১১টা নাগাদ তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক অসীম ঘোষ, জেলা যুব তৃণমূল সভাপতি গৌতম পাল ও জেলা পরিষদের তৃণমূল কৃষি কর্মাধ্যক্ষ মোশারফ হোসেনকে নিয়ে বীরঘই পঞ্চায়েতের রূপাহার থেকে রোড শো শুরু করেন রাজীব। উত্তর রূপাহার, মহিষবাথান, জয়নগর, বীরঘই, পিপলান, ঋষিপুর হয়ে তা বাজিতপুরে শেষ হয়। দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত অনন্তপুর, ধনকৈল, রাধিকাপুর ও ভাণ্ডার পঞ্চায়েতে পদযাত্রা, জনসভা ও কর্মিসভা করেন তিনি। বিজেপির জেলা সভাপতি নির্মল দামের অবশ্য পাল্টা দাবি, ‘‘তৃণমূলের পরাজয় নিশ্চিত। তা বুঝতে পেরেই নেতা-মন্ত্রীরা এনআরসি নিয়ে অপপ্রচার করে বাসিন্দাদের আতঙ্কিত করার চেষ্টা করছেন।’’