• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সপা-র চাল, অটল তৃণমূল

TMC not ready to consider SP's worth
প্রচারে: কালিয়াগঞ্জে (বাঁ দিকে) শুভেন্দু অধিকারী

Advertisement

গত লোকসভা নির্বাচনের জোটসঙ্গীকে ছেড়েই এ বারে কালিয়াগঞ্জে লড়ছে সমাজবাদী পার্টি (সপা)। কেন? বুধবার দলের প্রচারসভায় এসে সেই কারণটাই ব্যাখ্যা করলেন সমাজবাদী পার্টির সর্বভারতীয় সহকারী সভাপতি কিরণময় নন্দ। তাঁর যুক্তি, ‘‘২০২১ সালে এই রাজ্যে কোনও দল একক ভাবে ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা খুবই কম। সে কথা মাথায় রেখেই কালিয়াগঞ্জে আলাদা প্রার্থী দিয়েছে সপা।’’ তিনি আরও জানান, পরে এই নির্বাচনে দলের ফল বিশ্লেষণ করে উত্তর দিনাজপুর জেলায় দলকে শক্তিশালী করা হবে। 

তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব কিরণময়ের কথাকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন না। তৃণমূলের জেলা পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘‘লোকসভা ও বিধানসভা নির্বাচনের মধ্যে অনেক ফারাক। কে কোথায় প্রার্থী দিল, তাতে তৃণমূলের কিছু যায় আসে না।’’ 

এই জেলাটি অবশ্য প্রাক্তন মৎস্যমন্ত্রী কিরণময় নন্দের অপরিচিত নয়। ২০১১ সালের বিধানসভা ভোটে রায়গঞ্জ কেন্দ্রে বামফ্রন্ট প্রার্থী হিসেবে সমাজবাদী পার্টির টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন কিরণময়। সে বারে কংগ্রেস-তৃণমূল জোটপ্রার্থী মোহিত সেনগুপ্তের কাছে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার ভোটে পরাজিত হন তিনি। এর পর সমাজবাদী পার্টি কিরণময়কে উত্তরপ্রদেশ থেকে রাজ্যসভার সাংসদ করে। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে সপা রায়গঞ্জ কেন্দ্রে উত্তরপ্রদেশের প্রতিমন্ত্রী সুদীপ সেনকে প্রার্থী করে। কিরণময়ের নেতৃত্বে প্রচার চালে। কিন্তু তিনি হেরে যান। এর পর থেকে উত্তর দিনাজপুর জেলায় কোনও নির্বাচনেই সমাজবাদী পার্টিপ্রার্থী দেয়নি।

এ বারে কালিয়াগঞ্জের উপ নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টি প্রার্থী দেওয়ায় ধর্ম নিরপেক্ষ ভোট ভাগাভাগি হয়ে বিজেপির সুবিধা হতে পারে বলে করছেন জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। 

কিরণময় এ দিন বলেন, ‘‘লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিজেপিকে রুখতে সমাজবাদী পার্টি এ রাজ্যে তৃণমূলকে সমর্থন করেছিল। তবে লোকসভা আর বিধানসভা ভোটের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট এক নয়। লোকসভা ভোটের পর থেকে দেশের প্রতিটি রাজ্যে রাজনৈতিক সমীকরণ দ্রুত বদলাচ্ছে। উত্তরপ্রদেশে সপা সর্ববৃহৎ দল হিসেবে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছে। ঝাড়খণ্ড ও বিহারের বিধানসভা ভোটেও সপা একক শক্তিতে লড়াই করছে।’’

কিরণময়ের কথায়, ‘‘রাজ্যেও ২০২১ সালে কোনও দলের পক্ষে একক ভাবে ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা কম। বিজেপিকে রুখতে সব দলকে একজোট হয়ে সরকার গড়তে হতে পারে। তাই, দলের শক্তি বাড়াতে কালিয়াগঞ্জে আলাদা প্রার্থী দিয়েছে সপা।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন