• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সচেতন করলেন উপাচার্য

nbu
ফাইল চিত্র।

ক্যাম্পাসের ভিতরের চায়ের দোকান থেকে শুরু করে ক্যাম্পাসের ক্যান্টিন। সব জায়গায় ঘুরে ঘুরে নিজের হাতে মাটির ভাঁড় বিলি করলেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুবীরেশ ভট্টাচার্য। দোকানদারদের বোঝালেন প্লাস্টিকের অপকারিতা সম্পর্কে। এনএসএস ইউনিটের প্লাস্টিকমুক্ত ক্যাম্পাসের প্রচারে ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার এ ভাবেই পা মেলালেন উপাচার্য।

প্লাস্টিক ব্যবহারের অপকারিতা নিয়ে অনেকদিন ধরেই ক্যাম্পাসে প্রচার চালাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের এনএসএস ইউনিট-২। ইতিহাস বিভাগের তত্ত্বাবধানে কাজ করে ওই ইউনিট। ক্যাম্পাসের ভিতরে রয়েছে বেশ কিছু খাবারের দোকান আর একাধিক ক্যান্টিন। অভিযোগ বেশিরভাগ দোকানেই ব্যবহার করা হচ্ছে প্লাস্টিকের কাপ, প্লেট, ক্যারিব্যাগ। সেখানেই এ দিন প্রচার চালান হয়।

এ দিন এনএসএসের পক্ষ থেকে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন এলাকায় চারাগাছ লাগানো হয়। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে যোগ দেন উপাচার্য। তারপর পড়ুয়া ও শিক্ষকদের নিয়ে যান বিভিন্ন দোকানে। ক্যাম্পাসের কলা ভবনের সামনেই চায়ের দোকান আছে প্রদীপ রায়ের। এ দিন তাঁর কাছে গিয়ে প্লাস্টিকের কাপ ব্যবহার না করার অনুরোধ করেন উপাচার্য। তারপরে তাঁর হাতে তুলে দেন বেশকিছু মাটির ভাঁড়। আশেপাশের দোকানগুলিতেও ভাঁড় বিতরণ করেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, দূরশিক্ষা বিভাগ, ভূগোল বিভাগ, ল-মোড়ে লাগোয়া এলাকায় থাকা দোকানগুলিতে বিলি করা হয় ভাঁড়।

উপাচার্য বলেন, ‘‘ক্যাম্পাস প্লাস্টিকমুক্ত হওয়া প্রয়োজন। ওই কাজে পড়ুয়া, শিক্ষক, কর্মী, দোকানদার সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।’’ এনএসএস ইউনিট-২ এর প্রোগ্রাম অফিসার সুদাস লামা বলেন, ‘‘প্রাথমিকভাবে প্রতিটি দোকানদারকে উৎসাহিত করতে আমরা গড়ে ১০০টি করে মাটির ভাঁড় দিয়েছি। এই সচেতনতা প্রচার চলবে।’’ 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন