নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। বংশীহারি থানার শ্যামপুরের ঘটনা। শনিবার রাতেই অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। রবিবার গঙ্গারামপুর মহকুমা আদালতে ধৃতকে তোলা হলে বিচারক তাকে দু’দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, নাবালিকার বাবা-মা কাজের সূত্রে কেরলে থাকেন। শ্যামপুরে দিদার বাড়িতে থাকত অষ্টম শ্রেণির ওই নির্যাতিতা। অভিযোগ, প্রতিবেশী যুবক বেশ কয়েক বার তাকে ধর্ষণ করে। গত কিছু দিন ধরে মেয়েটির পেট ফুলতে শুরু করে। বেশ কয়েক বার বমিও করে। নির্যাতিতার দিদা নাতনির কালাজ্বর হয়েছে ভেবে হরিরামপুর গ্রামীণ হাসপাতালে শনিবার ভর্তি করেন। সেখানেই চিকিৎসকেরা জানান মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে বলে জানতে পারেন। তার পরেই খবর দেওয়া হয় হরিরামপুর থানায়। সেখান থেকে পুলিশ গিয়ে মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযুক্ত যুবক সম্পর্কে জানতে পারেন। তার পরেই মেয়েটির দিদার থেকে লিখিত অভিযোগ নিয়ে রাতে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। মেয়েটিকে তুলে দেওয়া হয় চাইল্ড লাইনের হাতে। গঙ্গারামপুর মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বিপুল বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণ করার দায়ে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে।’’