• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্ধ থাকবে তারাপীঠ মন্দিরও

Tarapith
ফাইল চিত্র

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এ বার তারাপীঠ মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হল। বৃহস্পতিবার দুপুরে তারাপীঠ মন্দির কমিটির সমস্ত সেবাইতরা নিজেদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসেন। সেই বৈঠকে তারাপীঠ মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য আজ, শুক্রবার ভোর থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে মন্দির কমিটি। মন্দির কমিটির সিদ্ধান্ত জেলা পুলিশ প্রশাসনকে ফোনে জানিয়ে দেওয়া হয়। মন্দির কমিটির সমস্ত সেবাইতরাও দূর দূরান্তের ভক্তদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করে সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন। 

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘তারাপীঠে ভারত ছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দর্শনার্থীরা পুজো দিতে আসেন। প্রতিদিন হাজার হাজার দর্শনার্থী তারাপীঠে আসেন। শনিবার এবং মঙ্গলবার দর্শনার্থীদের ভীড় বেশি হয়। এদিকে বর্তমানে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে সারা বিশ্ব আলোড়িত। বিভিন্ন জায়গায় মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরাও মানুষের প্রয়োজনে তারাপীঠ মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ তিনি জানান, ৩১ মার্চের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সম্পাদক ধ্রুব চট্টোপাধ্যায় জানান, এর আগে জেলা প্রশাসন যে নির্দেশ দিয়েছিল তা মেনে চলা হচ্ছিল। প্রথমে মন্দিরে দর্শনার্থীদের লাইনে দূরত্ব বজায় রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। 

পাশাপাশি প্রশাসনের নির্দেশে মন্দির চত্বরে মন্দির কমিটির মাইক থেকে করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে রাজ্য সরকার থেকে প্রচারিত অডিয়ো ক্লিপ প্রচার করা হয়। সেই সঙ্গে মন্দির চত্বরে করোনাভাইরাস সচেতনতা বৃদ্ধিতে ফ্লেক্স, পোস্টার টাঙানো হয়েছিল। পাশাপাশি স্বাস্থ্য দফতর থেকে দর্শনার্থীদের জন্য মেডিক্যাল ক্যাম্প করা হয়। এই সব পদক্ষেপের পরেও শেষ পর্যন্ত 

মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করারই সিদ্ধান্ত হল।

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সেবাইতরা জানান, তারাপীঠ মন্দির চত্বরের জায়গা ছোট। এর ফলে মন্দিরে দর্শনার্থীদের লাইনে ১ মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে অসুবিধা হচ্ছিল। এ ছাড়া মন্দিরের গর্ভগৃহে একজন একজন করে পুজোর ব্যবস্থা করতে গিয়ে দর্শনার্থীরা আপত্তি জানাচ্ছিলেন। মন্দির চত্বরেও জমায়েতও বন্ধ করা যাচ্ছিল না। এর জন্য মন্দির কমিটি জরুরি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মন্দির কমিটির সেবাইত তথা কোষাধ্যক্ষ শ্যামল মুখোপাধ্যায় জানান, দর্শনার্থীদের জন্য মন্দির কমিটি বন্ধ রাখা হলেও নিত্য পুজো বন্ধ থাকবে না।

মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য সাময়িক বন্ধ রাখার ব্যাপারে মন্দির কমিটির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন তারাপীঠ লজ মালিক সমিতির সভাপতি সুনীল গিরি। তিনি বলেন, ‘‘এটা সঠিক সিদ্ধান্ত। আমরা পুণ্যার্থীদের বিষয়টি বুঝিয়ে বলছি। আশা করি তাঁরাও বিষয়টি বুঝবেন।’’ এ দিনই অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করা হয় নলহাটি থানার ভদ্রপুর গ্রামে ঐতিহ্যবাহী আকালিপুর গুহ্যকালী মন্দিরও। পুজো হলেও পুণ্যার্থীরা ঢুকতে পারবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মন্দির কমিটি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে খুলবে মন্দির।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন