প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘মন কি বাত’ শুনতে গ্রামের মাঠে জড়ো হয়েছিলেন বিজেপি কর্মীরা। অভিযোগ, শাসকদলের তা পছন্দ না হওয়ায় পুলিশ বাহিনী গিয়ে বিজেপি কর্মীদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়। রবিবার সকালে বিষ্ণুপুর থানার মড়ার ১ নম্বর ক্যাম্পের খেলার মাঠে ওই ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ।

বিজেপির বিষ্ণুপুর ২ নম্বর গ্রামীণ মণ্ডল ওই জমায়েতের আয়োজন করেছিল। বিভিন্ন এলাকার বিজেপি কর্মীরা সকালে সেখানে জড়ো হন। বিজেপির ওই এলাকার মণ্ডল সভাপতি বিমল ঘরামি অভিযোগ, ‘‘আমরা প্রায় একশো দলীয় কর্মী শুধুমাত্র এক জায়গায় বসে রেডিওতে প্রধানমন্ত্রীর ‘মন কি বাত’ শুনব বলে জড়ো হয়েছিলাম।’’

তাঁর বক্তব্য, ‘‘আমাদের সঙ্গে মাইক বা ফেস্টুন কিছুই ছিল না। কিন্তু, হঠাৎ স্থানীয় শাসকদলের কয়েকজন এসে জানিয়ে দেন, মন কি বাত শোনা যাবে না। তারপর দু’গাড়ি পুলিশ এসে আমাদের তাড়িয়ে দিল। রেডিওতে প্রধানমন্ত্রীর ওই অনুষ্ঠানের সম্প্রচারই শুনতে পেলাম না।’’

পরে তাঁরা বিমলবাবুর বাড়ির বাগানে গিয়ে নিজেদের মধ্যে বৈঠক করেন। সেখানেই দুপুরে সবাই মিলে খাওয়াদাওয়া সারেন। বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ অবশ্য দাবি করেছে, বিজেপি তাদের কাছে কোনও অনুমতি না নিয়েই সেখানে জমায়েত করেছিল। সামনেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। তাই মাইক না বাজানো হলেও জমায়েত করারও অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। সে কারণেই তাঁদের সরিয়ে দেওয়া হয়।’’

তৃণমূলের বিষ্ণুপুর ব্লক সভাপতি মথুর কাউড়ির দাবি, ‘‘বিজেপিকে আমরা হিসাবের মধ্যে রাখি না। তবে, পরীক্ষার জন্য আমরা যেখানে সভা করতে পারছি না, সেখানে অন্য দল কী করে নিয়ম ভাঙতে পারে?’’