×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ মে ২০২১ ই-পেপার

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন

Bengal Polls: দুই বিলাসবহুল গাড়ি, পৌনে ১ কোটির অস্থাবর সম্পত্তি, জানালেন কীর্তনে স্নাতকোত্তর অদিতি

নিজস্ব প্রতিবেদন
১২ এপ্রিল ২০২১ ১১:০৫
স্বামী রাজনীতিক হলেও তাঁর আনাগোনা ছিল গানের জগতেই। সুরলোক থেকে রাজনীতিতে যোগ দিয়েই সরাসরি ভোটের ময়দানে। জনপ্রিয় গায়িকা অদিতি এ বার রাজারহাট গোপালপুর কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী।

নির্বাচন কমিশনের কাছে হলফনামা পেশ করে নিজের উপার্জন এবং সম্পত্তির বিবরণ জানিয়েছেন অদিতি। ২০১৯-২০ আর্থিক বর্ষে তাঁর উপার্জন ছিল ৪ লক্ষ ১৯ হাজার ৪০০ টাকা। তাঁর স্বামী দেবরাজ চক্রবর্তীর উপার্জন ছিল ৭ লক্ষ ১০ হাজার ৯৭ টাকা।
Advertisement
এই মুহূর্তে অদিতির হাতে নগদ রয়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। স্বামী দেবরাজের হাতে আছে ৪৫ হাজার টাকা। ব্যাঙ্কের দু’টি সেভিংস অ্যাকাউন্টে অদিতির নামে আছে যথাক্রমে ২ লক্ষ ২ হাজার ২৭২ টাকা ৪১ পয়সা এবং ২০ লক্ষ ৭৭৩ টাকা ৬৭ পয়সা। এসবিআই-এ স্থায়ী আমানত আছে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ৫৪০ টাকা।

স্বামী দেবরাজের সেভিংস অ্যাকাউন্টে গচ্ছিত আছে ৪৯ লক্ষ ৭৬৭ টাকা, কারেন্ট অ্যাকাউন্টে রয়েছে ৬২ হাজার ৭৬ টাকা। শেয়ারবাজারে এই দম্পতির কোনও বিনিয়োগ নেই। তবে অদিতি জীবনবিমা করেছেন ১ লক্ষ এবং আড়াই লক্ষ টাকার। দেবরাজ বিমায় কোনও টাকা বিনিয়োগ করেননি।
Advertisement
দেবরাজের না থাকলেও অদিতির দু’টি গাড়ি আছে। তাঁর জাইলো-র মূল্য ১৮ লক্ষ ৪৫ হাজার ৪৫৩ টাকা। কিনেছিলেন ২০১৬ সালে। দু’বছর পরে ফরচুনার কিনেছেন ৩২ লক্ষ ৭৯ হাজার ২২২ টাকা দিয়ে।

অদিতির মহার্ঘ্য সম্পত্তির মধ্যে অন্যতম ৩৫০ গ্রাম সোনার গয়না। তার বাজারদর প্রায় ১৫ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা। দেবরাজের কাছে আছে ৬ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকার ১৫০ গ্রাম সোনা।

অদিতি এবং দেবরাজের নামে কোনও কৃষিজমি, দোকানঘর, এমনকি, নিজস্ব বাড়িও নেই। দু’টি ক্ষেত্রে গাড়ি কেনার ঋণ শোধ করতে হচ্ছে অদিতিকে। প্রথম ঋণের মধ্যে এখনও ৩৫ হাজার ৬৭৯ টাকা বাকি। দ্বিতীয় ঋণের ক্ষেত্রে বাকি আছে ১২ লক্ষ ৬ হাজার ৩৪৯ টাকা।

অদিতির মালিকানায় থাকা অস্থাবর সম্পত্তির মোট মূল্য ৭৫ লক্ষ ৯২ হাজার ২৬১ টাকা। দেবরাজের অস্থাবর সম্পত্তির বাজারদর ২৩ লক্ষ ৩১ হাজার ৮৪৩ টাকা। দু’জনের কেউই স্থাবর সম্পত্তির কোনও উল্লেখ করেননি।

২০১১ সালে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কীর্তনে স্নাতকোত্তর করেন অদিতি। নিজের প্রতিষ্ঠানে গান শেখানো এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শিল্পী হিসেবে গান করাকেই পেশা হিসেবে উল্লেখ করেছেন তিনি।

অদিতির স্বামী দেবরাজ কাউন্সিলর হিসেবে বেতন পান বিধাননগর পুরসভা থেকে। পাশাপাশি, তাঁর একটি নির্মাণ সংস্থাও আছে।

রাজারহাট গোপালপুর কেন্দ্রে অদিতির মূল প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি-র শমীক ভট্টাচার্য এবং সংযুক্ত মোর্চা প্রার্থী সিপিএম-এর শুভজিৎ দাশগুপ্ত। তাঁদের বিরুদ্ধে এই তরুণ শিল্পীর সফর কতটা সুরেলা হয়, দেখার অপেক্ষায় তাঁর অনুরাগীরা।