×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

কেরিয়ার কিছু দূর এগোতেই উধাও প্রথম ছবির আকাশছোঁয়া সাফল্য, ‘অমরসঙ্গী’-র ঝিলিক চলে গেলেন অন্ধকারে

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ৩০ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:৫৭
প্রথম ছবির সাফল্য ছিল আকাশছোঁয়া। নবাগতাকে ঘিরে চড়েছিল প্রত্যাশার পারদ। কিন্তু দ্রুত সব স্বপ্ন মিলিয়ে গেল। কেরিয়ার কিছু দূর এগোতেই মুখ থুবড়ে পড়ল। বিজয়েতা পণ্ডিত চলে গেলেন অন্ধকারে।

বিজয়েতার জন্ম হরিয়ানার হিসার জেলার পিলি মন্দোরি গ্রামে। তাঁর পরিবারে গান ও অভিনয়ের ধারা অনেক দিন ধরেই ছিল। বিজয়েতার দিদি সুলক্ষণা পণ্ডিত বলিউডের অভিনেত্রী এবং গায়িকা। সুরকার জুটি যতীন-ললিত তাঁদের ভাই।
Advertisement
পণ্ডিত যশরাজের সঙ্গেও তাঁদের পারিবারিক সম্পর্ক। তিনি বিজেয়তার কাকা হন। ফলে ছোট থেকেই সঙ্গীতচর্চার আবহে বড় হন সুলক্ষণা-বিজয়েতা-যতীন-ললিত।

বিজয়েতার প্রথম ছবি ‘লভ স্টোরি’ মুক্তি পায় ১৯৮১ সালে। এই ছবিতে তাঁকে সুযোগ দেন অভিনেতা রাজেন্দ্র কুমার। ছবির নায়ক ছিলেন রাজেন্দ্র কুমারের ছেলে কুমার গৌরব।
Advertisement
প্রথম ছবিতেই বাজিমাত নতুন জুটির। বক্স অফিসে ছবি সুপারহিট। পর্দার রসায়ন জমে উঠল পর্দার বাইরেও। একে অন্যের প্রেমে বুঁদ কুমার গৌরব আর বিজয়েতা।

কুমার গৌরবের সঙ্গে আরও বেশি সময় কাটাবেন বলে অনেক ছবির সুযোগ ফিরিয়ে দেন বিজয়েতা। কিন্তু তাঁদের সম্পর্ক বেশিদিন স্থায়ী হল না।

দুই বাড়ির তরফেই আপত্তি ছিল। ফলে ছেদ পড়ল প্রেমে। সম্পর্ক ভাঙার পরে বিজয়েতা আবার মন দেন অভিনয়ে। ১৯৮৫ সালে মুক্তি পাওয়া তাঁর ছবি ‘মহাব্বত’ হিট হয়।

১৯৮৬ সালে বিজয়েতা অভিনয় করেছিলেন ‘কার থিফ’ বলে একটি ছবিতে। পরিচালক ছিলেন সমীর মালকান। তাঁকেই বিয়ে করেন বিজয়েতা। কিন্তু সে দাম্পত্য বেশিদিন স্থায়ী হয়নি।

এরপর আরও কিছু ছবিতে অভিনয় করেছিলেন বিজয়েতা। কিন্তু সাফল্য ক্রমেই তাঁর থেকে দূরে সরে যেতে থাকে। তিনি এরপর অভিনয় ছেড়ে চলে আসেন প্লে ব্যাক-এ।

১৯৯০ সালে বিজয়েতা বিয়ে করেন সুরকার আদেশ শ্রীবাস্তবকে। স্বামীর প্রযোজনায় প্রকাশিত হয় বিজেয়তার পপ অ্যালবাম ‘প্রোপোজ-প্যায়ার কা ইজহার’।

২৫ বছরের দাম্পত্যে হঠাৎই কাটল সুর। ২০১৫ সালে প্রয়াত হলেন ক্যানসার আক্রান্ত আদেশ। দুই ছেলে অভিতেশ আর অনিবেশকে নিয়ে একা হয়ে যান বিজয়েতা।

‘লভ স্টোরি’ বাদে বিজয়েতার কেরিয়ারে উল্লেখযোগ্য ছবি হল, ‘জিতে হ্যায় শান সে’, ‘দিওয়ানা তেরে নাম কা’, ‘জো জিতা ওহি সিকন্দর’, ‘কভি হাঁ কভি না’, ‘সাজিশ’ এবং ‘দেব’।

হিন্দির বাইরে অন্য ভাষার ছবিতেও অভিনয় করেছেন বিজয়েতা। সুজিত গুহর পরিচালনায় ‘অমর সঙ্গী’ ছবিতে তিনি-ই ছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের নায়িকা।(ছবি: সোশ্যাল মিডিয়া)