Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

লকডাউনে ‘ভাবিজি..’ ছাড়তে বাধ্য হন, ফিল্ম ছাড়া সব পেশাতেই সফল করিনার ‘বোন’

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১০:১২
মডেলিং, উপস্থাপনা, ধারাবাহিকে অভিনয় এবং তারপর ফিল্ম। ২০০৬ সাল থেকে কেরিয়ার নিয়ে ভাবতে শুরু করেছিলেন সৌম্যা টন্ডন। আর ওই বছর থেকেই সাফল্য যেন তাঁর পা ছুঁয়ে ফেলে।

কেরিয়ারের এই চার ক্ষেত্রের মধ্যে প্রথম তিন ক্ষেত্রেই সফল সৌম্যা। শুধু মাত্র ফিল্মে সে ভাবে পসার জমাতে পারেননি তিনি। তবে তা নিয়ে এতটুকু আক্ষেপ নেই সৌম্যার।
Advertisement
সৌম্যার জন্ম মধ্যপ্রদেশের ভোপালে। তাঁর বাবা অধ্যাপক। পড়াশোনা শেষ করে ২০০৬ সালে তিনি মডেলিং শুরু করেন।

মডেলিংয়ে সাফল্য আসতে শুরু করে ওই বছর থেকেই। তার পর উপস্থাপকের কাজ করতে শুরু করেন। অভিনয় যেমন কষ্টসাধ্য, তেমনই উপস্থাপনাও বেশ কঠিন। ছবির মতো হিট-ফ্লপের ভাবনা বা চাপ না থাকলেও শোয়ের উপস্থাপকদের রীতিমতো টানাপড়েনের মধ্যে কাটাতে হয়।
Advertisement
মনের সব আবেগ লুকিয়ে রেখে হাসিমুখে মঞ্চে নিজেকে হাজির করাটাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। খুব সাবলীল ভাবেই সেটা করতে পারতেন সৌম্যা।

তিনি ভারতীয় টেলিভিশন শো-এর জনপ্রিয় মুখও। ২০০৬ সালেই মডেলিং এবং উপস্থাপনার পাশাপাশি হিন্দি ধারাবাহিকেও কাজের প্রস্তাব পেতে শুরু করেন।

২০০৬ থেকে এখনও চুটিয়ে ধারাবাহিকে কাজ করে চলেছেন তিনি। তবে তাঁর সবচেয়ে সফল ধারাবাহিক ‘ভাবীজি ঘর পর হ্যায়’। ২০১৫ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত এই ৫ বছর ‘ভাবীজি ঘর পর হ্যায়’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি।

এই ধারাবাহিক তাঁকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দেয়। কিন্তু টানা ৫ বছর কাজ করার পর ২০২০ সালে আচমকাই তিনি এই ধারাবাহিক থেকে বিদায় নেন।

ইন্ডাস্ট্রিতে গুঞ্জন, লকডাউনে তাঁকে পারিশ্রমিক কাটছাঁট করতে বলা হয়েছিল। তাঁকে যা পারিশ্রমিক দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তাতে নাকি সৌম্যার ব্যক্তিগত এবং সংসার খরচ কোনওভাবেই বহন করা সম্ভব ছিল না।

এই কারণেই নাকি এই জনপ্রিয় ধারাবাহিকটি ছেড়ে দেন সৌম্যা। সৌম্যা ছিলেন এই ধারাবাহিকের অন্যতম আকর্ষণ। সৌম্যার বদলে অন্য মুখ দর্শক কত তাড়াতাড়ি মেনে নিতে পারেন সেটাই দেখার।

ধারাবাহিকে ২০০৬ সাল থেকে কাজ করছেন সৌম্যা। এর এক বছরের মধ্যেই আবার ফিল্মেও সুযোগ পেয়ে যান তিনি। ‘জব উই মেট’-এ করিনা কপূরের বোনের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল সৌম্যাকে।

ছোট পর্দা থেকে এত তাড়াতাড়ি বড় পর্দায় সুযোগ পাওয়ার উদাহরণ খুব কম রয়েছে ইন্ডাস্ট্রিতে। তবে ফিল্মে সে ভাবে পসার জমাতে পারেননি। ইমতিয়াজ় আলির ‘জব উই মেট’-এর পর সে ভাবে বড় পর্দায় দেখা যায়নি সৌম্যাকে।

এটা নিয়ে অবশ্য এতটুকু আফসোস নেই তাঁর। কারণ ধারাবাহিক তাঁকে যে জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে তা কোনও বলি নায়িকার থেকে কম নয়।

২০১৬ সালে কলেজের বন্ধু সৌরভকে বিয়ে করেন সৌম্যা। ২০১৯ সালে তাঁদের এক সন্তান হয়। সন্তানকে নিয়েই আপাতত ব্যস্ত সৌম্যা।

অভিনয়ের পাশাপাশি লেখালেখিও করতে ভালবাসেন তিনি। সময় পেলেই ছন্দ মিলিয়ে কবিতা লেখেন সৌম্যা।