Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বিনোদন

সম্পর্কে ননদ-ভ্রাতৃবধূ, তবু তিক্ততা কমেনি সোনম এবং দীপিকার

নিজস্ব প্রতিবেদন
৩১ অক্টোবর ২০২০ ১১:০০
বলিউডে নায়িকাদের মধ্যে সুসম্পর্ক বেশ বিরল। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তাঁরা একে অন্যের প্রতি যেন মারমুখী। এ রকমই বিবদমান একটি জুটি দীপিকা-সোনম। দু’জনের মধ্যে তিক্ততা এতটাই চরমে পৌঁছেছিল যে মুখ দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ হতে বসেছিল।

দীপিকা এবং সোনম প্রায় একইসঙ্গে পা রেখেছিলেন ইন্ডাস্ট্রিতে। ২০০৭ সালে মুক্তি পেয়েছিল দু’জনের প্রথম ছবি। দীপিকা আত্মপ্রকাশ করেছিলেন শাহরুখ খানের বিপরীতে ‘ওম শান্তি ওম’ ছবিতে। সোনম কপূরকে বলিউডের সঙ্গে পরিচয় করিয়েছিলেন সঞ্জয় লীলা ভন্সালী। তাঁর ‘সাওয়ারিয়াঁ’ ছবিতে।
Advertisement
তবে বক্স অফিসের হিসেব ছিল দু’জনের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ আলাদা। দীপিকার প্রথম ছবি ছিল সুপারহিট। কিন্তু সোনমের প্রথম ছবি মুখ থুবড়ে পড়েছিল বক্স অফিসে। এই ছবির শ্যুটিংয়ে রণবীর কপূর এবং সোনমের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল বলে শোনা গিয়েছিল।

কিন্তু ছবি ফ্লপ হওয়ায় সেই গুঞ্জন বেশি বাড়েনি। অন্য দিকে এর পর ‘বচনা অ্যায় হাসিনোঁ’ ছবির শুটিংয়ে কাছাকাছি আসেন রণবীর ও দীপিকা। এই ছবির পর থেকেই তাঁদের প্রেম চলে আসে বলিউডের আলোচনার শীর্ষে।
Advertisement
অভিনয় একসঙ্গে শুরু করেও কেরিয়ারের পথে দীপিকা এগিয়ে গিয়েছিলেন অনেক। কর্ণ জোহরের টক শো-এ এসে সোনম যা বলেছিলেন, তাতে স্পষ্টই হয়ে ওঠে তাঁদের বৈরিতা। এমনকি, তিনি ওই শো-এ ক্যাটরিনার প্রশংসাও করেন। তত দিনে ক্যাটরিনার জন্য ভেঙে গিয়েছিল রণবীর-দীপিকা সম্পর্ক।

ক্যাটরিনার ফ্যাশনের প্রশংসা করেন সোনম। পাশাপাশি, নাম না করে তিনি কটাক্ষ করেন দীপিকাকে। বলেন, জোর করে নিজেকে ফ্যাশন সচেতন দেখানোর মধ্যে তিনি সার্থকতা খুঁজে পান না। বরং, যাঁকে যা মানায়, সে ভাবেই সাজগোজ করা উচিত।

এর পরেও বার বার দীপিকাকে আক্রমণ করেছেন সোনম। দু’জনের শত্রুতার প্রথম কারণ যদি রণবীর হন, দ্বিতীয় কারণ সঞ্জয় লীলা ভন্সালী। কারণ ‘সাওয়ারিয়াঁ’-র পরে সোনমকে আর সুযোগই দেননি ভন্সালী। ক্রমে দীপিকাই হয়ে উঠেছেন তাঁ পছন্দের নায়িকা।

সম্প্রতি একটি ছবি শেয়ার করেছেন সোনম। সঙ্গে লিখেছেন, তিনি অতীতে এই মেক আপে কোনও ছবির জন্য অডিশন দিয়েছিলেন। তাঁর পোশাক ও মেকআপ থেকে স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে ছবিটি সঞ্জয় লীলা ভন্সালীর ‘রামলীলা’। যেখানে শেষ অবধি অভিনয় করেছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন।

বয়ফ্রেন্ড, পরিচালকের পরে সোনমের এনডোর্সমেন্টেও ভাগ বসালেন দীপিকা। যে যে ব্র্যান্ডের মুখ ছিলেন সোনম, সে সব ব্র্যান্ড চলে গিয়েছিল দীপিকার কাছে। শেষে এমন পরিস্থিতি দাঁড়ায়, দীপিকা কোনও ব্র্যান্ড প্রত্যাখ্যান করলে তবেই সুযোগ পেতেন সোনম। শোনা যায়, এই কারণে হতাশ সোনম নিজের পিআর এজেন্সি পর্যন্ত পাল্টে ফেলেন।

একটি অ্যাওয়ার্ড শো-এর মঞ্চেও দীপিকা টেক্কা দেন সোনমকে। সেই অনুষ্ঠানে রেখাকে লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। রেখার উপর চিত্রায়িত বিভিন্ন গানের সঙ্গে পারফর্ম করেছিলেন নায়িকারা। একটি গানের সঙ্গে সোনমও পারফর্ম করেছিলেন।

সোনম জানতেন রেখার হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন তিনি-ই। সে জন্য তিনি অপেক্ষাও করছিলেন। কিন্তু তাঁর অপেক্ষাই সার হল। তাঁকে চমকে দিয়ে অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে ডেকে নেওয়া হয় দীপিকা পাড়ুকোনকে। তিনি-ই রেখার হাতে পুরস্কার তুলে দেন। রাগের চোটে সোনম সেই মুহূর্তেই অ্যাওয়ার্ড ফাংশন ছেড়ে চলে যান।

পরে শোনা যায়, দীপিকা নাকি শেষ মুহূর্তে জানিয়েছিলেন তিনি অনুষ্ঠানে আসবেন, তবে একটাই শর্তে। তিনি-ই রেখার হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন। দীপিকার মতো তারকার উপস্থিতির কথা বিবেচনা করে তাঁর প্রস্তাবে রাজি হয়েছিলেন উদ্যোক্তারা। ফলে সুযোগ হাতছাড়া হয় সোনমের।

এত শত্রুতা সত্ত্বেও দীপিকা এবং সোনম কিন্তু আত্মীয়। দীপিকার স্বামী রণবীর সিংহ সম্পর্কে সোনমের তুতো ভাই। অর্থাৎ তিনি দীপিকার ননদ। কিন্তু তার জন্য তাঁদের সম্পর্কের কোনও উন্নতি হয়নি।

তবে রণবীর-দীপিকার বিয়ের পরে প্রকাশ্য বিরোধিতা থেকে দূরে থাকেন সোনম এবং দীপিকা। সম্প্রতি দীপিকার পোশাকেরও প্রশংসা করেছেন সোনম। কাজের জগতে একে অন্যকে বাহবাও দিয়েছেন। কিন্তু সম্পর্কের শীতলতা রয়েই গিয়েছে।

তবে একটা বিষয়ে দু’জনে এক জায়গায় মিলে গিয়েছেন। কর্ণ জোহরের টক শো-এ একসঙ্গে এসেছিলেন সোনম-দীপিকা। দু’জনেই আক্রমণ করেছিলেন রণবীর কপূরকে। শো-এর সেই পর্ব দেখে ঋষি কপূর মন্তব্য করেছিলেন ‘দ্রাক্ষাফল টক!’