বিতর্কিত পাক মডেল কান্দিল বালোচ হত্যায় তাঁর ভাই সহ আরও চার ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করল পঞ্জাবের একটি আদালত। গত ১৬ জুলাই লাহৌর থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে মুলতানে নিজের বাড়িতেই খুন হন কান্দিল। প্রাথমিক ভাবে সন্দেহের তির ছিল তাঁর ভাইয়ের দিকেই। পারিবারের সম্মান রক্ষার্থে খুন কিনা প্রশ্ন উঠেছিল তা নিয়েও। এমনকী কান্দিলের বাবা মহম্মদ আজিম তাঁর ছেলের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন।
অ্যাডিশনাল ডিস্ট্রিক্ট অ্যান্ড সেশন বিচারক আহমেদ রাজা গত মঙ্গলবার এই ঘটনায় কান্দিলের ভাই ওয়াসিম, খুড়তুতো ভাই নওয়াজ এবং এক ট্যাক্সি চালক আবদুল বাসিতকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন। লাহৌর হাইকোর্টের মুলতান বেঞ্চ থেকে আবদুল বাসিত ইতিমধ্যেই জামিন পেয়ে গিয়েছেন। আগামী ৮ ডিসেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে।
কান্দিল খুন হওয়ার পরই গ্রেফতার হন ওয়াসিম। পুলিশি জেরায় তিনি স্বীকারও করেন, মাদক খাইয়ে বেহুঁশ কান্দিলকে শ্বাসরোধ করে খুন করেছেন তিনি। এবং তা নিয়ে সে বিন্দুমাত্র অনুতপ্তও নন। ওয়াসিম জানিয়েছিলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়া কান্দিলের নানা সময়ের খোলামেলা ছবি বা ধর্মগুরু মুফতি আব্দুল কাভের সঙ্গে তোলা ছবির জন্য ধুলোয় লুটিয়েছে পারিবারিক সম্মান। আর সেই ‘অপরাধেই’ কান্দিলকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন, এই সব বিতর্কের জন্যই কি খুন হলেন কান্দিল?