×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

সম্প্রচার শুরু ‘কৃষ্ণকলি’-র তেলুগু রিমেক ‘কৃষ্ণ তুলসী’-র, প্রযোজনায় রাঘবেন্দ্র রাও

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৮:৩৮
‘কৃষ্ণ তুলসী’ ও ‘কৃষ্ণকলি’

‘কৃষ্ণ তুলসী’ ও ‘কৃষ্ণকলি’

নতুন বছরে নতুন পালক জি বাংলার ‘কৃষ্ণকলি’র মুকুটে। ৩ বছর ধরে টানা বাংলা জয়ের পর এ বার তেলুগুতে রিমেক হচ্ছে ধারাবাহিকের। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে সম্প্রচার শুরু হয়েছে নতুন মেগার। নাম ‘কৃষ্ণ তুলসী’। ‘শ্যামা’র ভূমিকায় অভিনয় করছেন ঐশ্বর্য এইচ। ‘নিখিল’ দিলীপ শেট্টি। প্রবীণ দক্ষিণী পরিচালক রাঘবেন্দ্র রাও এই ধারাবাহিকের প্রযোজক। তাঁর ছত্রছায়াতেই তৈরি হচ্ছে মেগার প্রতিটি পর্ব।

আনন্দবাজার ডিজিটালের কাছে প্রথম সুসংবাদ দেন ‘কৃষ্ণকলি’র কাহিনিকার সুশান্ত বসু। স্বাভাবিক ভাবেই উচ্ছ্বসিত তিনি। জানিয়েছেন, ‘‘এর আগে ‘কে আপন কে পর’ এখনও হিন্দিতে চলছে ‘সাথ নিভানা সাথিয়া তু’ নামে। আরও ৭টি ভাষায় সম্প্রচারিত হচ্ছে। ‘কৃষ্ণকলি’ও সেই পথেই হাঁটতে শুরু করেছে। অবশ্যই গর্বের বিষয়।’’ যদিও এখনও তিনি দেখননি তেলুগু রিমেক। আশা, সেখানেও মূল কাহিনিকার হিসেবে হয়তো নাম থাকবে তাঁর। রাঘবেন্দ্র রাও প্রযোজনা করছেন শুনে কাহিনিকারের উচ্ছ্বাস বেড়ে দ্বিগুণ। দাবি, দেশের প্রথম সারির এক প্রযোজকের আশীর্বাদ ধারাবাহিকের উপরে। এটাও মস্ত বড় পাওনা।

কী কী মিল থাকছে বাংলা ও তেলুগু ধারাবাহিকের মধ্যে? জি ৫ তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, বাংলার মতোই বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে মুখ খুলবে ‘কৃষ্ণ তুলসী’ও। এখানেও প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে উঠে আসা এক ‘কালো মেয়ে’র লড়াইয়ের গল্প দেখানো হবে। ছুঁয়ে যাওয়া হবে গ্রামবাসীদের জীবন, যা আমাদের দেশের শিকড়। গান এই ধারাবাহিকেরও অন্যতম আকর্ষণ। অর্থাৎ, শ্যামার মতোই সুগায়িকা তুলসীও।

Advertisement
Advertisement