• অমৃত হালদার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সোশ্যাল মিডিয়ায় হিট এই ‘পুলিশ অফিসার’-এর হাতেই গ্রেফতার হতে চান সবাই

Kainaat Arora
কাইনাতের এই ছবিই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছবি: ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে।

Advertisement

সৌন্দর্যের ঝলসানিতে চোখ ফেরানো দায়! কে এই তন্বী? কয়েক দিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে এক ঝকঝকে, সুন্দরী উর্দিধারী পুলিশ অফিসারের ছবি। নাম ‘হরলীন মান’। তিনি নাকি পঞ্জাব পুলিশের এক অফিসার। মাঝারি উচ্চতার গৌরবর্ণ এই পুলিশ অফিসারকে দেখার পর থেকেই নানা মহলে তোলপাড় চলছে। তিনি চাকরিতে বহাল হতেই তাঁর হাতে ধরা দিতে উতলা হয়ে পড়েছেন বহু মানুষ। তাবড় নেতা থেকে উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মী, সেই ভিড়ে কে নেই! সোশ্যাল মিডিয়া এই সুন্দরী মহিলা পুলিশকে নিয়ে তোলপাড়।

আপনাদের অবাক করার জন্য আরও একটু খবর দেওয়া যাক। এই সু্ন্দরী পুলিশ অফিসারই ‘গ্রেট গ্র্যান্ড মস্তি’ ছবিতে চুটিয়ে অভিনয় করেছিলেন। আর সেই ছবিতে তাঁর অ্যাপিয়ারেন্সে সে বারও মাথা ঘুরে গিয়েছিল দর্শকদের। বিশ্বাস না হলেও এটাই সত্যি।

 

#Repost @jeetkalsi9 (@get_repost) ・・・First day with beautiful @ikainaatarora "jagga jiunda e" ..... #MikaSingh presents #jaggajiyuandae #film ... makeup: @rajus_makeup Hair : #mariaji #mariasharma costume : @wickedsunnyb ... waheguru.y

A post shared by Kainaat Arora ( Babyjaan ) (@ikainaatarora) on

এ বার ‘হরলীন মান’-এর আসল পরিচয়টা দেওয়া যাক। সোশ্যাল মিডিয়ার সব জল্পনায় জল ঢেলে সামনে এসেছেন ‘হরলীন মান’ তথা অভিনেত্রী কায়নাত অরোরা। নায়িকা জানিয়েছেন, ‘জগ্গা জিউনদা ই’ নামে একটি পঞ্জাবি ছবিতে ‘হরলীন মান’ নামে এক পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি।

আরও পড়ুন: শুটিংয়ে জখম কঙ্গনা, নিয়ে যাওয়া হল হাসপাতালে

যে ছবিতে তাঁর সঙ্গে অভিনয় করছেন জ্যাকি শ্রফ এবং দলজিৎ কলসী। সেই ছবির শুটিংয়ের কয়েকটি ছবি নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে আপলোড করেছিলেন তিনি। আর মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে তাঁর ছবি। ছড়িয়ে পড়েছে হাতে হাতে। সবাই ভেবে ফেলেন সত্যিই হরলীন নামে ওই রকম চোখধাঁধানো সুন্দরী পুলিশ অফিসার নিয়োগ হয়েছেন পঞ্জাবে।

 

এতে বেশ বিড়ম্বনায় পড়েছেন কায়নাতও। বুধবার দুপুরে আনন্দবাজারকে কায়নাত বললেন, ‘‘প্রথম বার যখন শুনেছিলাম আমার ছবি কেউ পঞ্জাবি পুলিশ অফিসার পরিচয় দিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছেন, তখন বেশ ঘাবড়েই গিয়েছিলাম।

’’ এর পর একের পর এক ফোন, মেসেজ আসতে শুরু করে। প্রশংসায় ভরে গিয়েছিল মেসেজ বক্স। এত প্রশংসা শুনে কেমন লেগেছিল তাঁর? ‘‘এ ভাবে আমার ছবি ভাইরাল হবে আমি কল্পনাও করতে পারিনি। মানুষের এত ভালবাসায় আমি প্রচণ্ড খুশি।’’ বি-টাউনের এই অভিনেত্রী চান তাঁর আপকামিং মুভিতে তাঁর চরিত্র যে ভাবে মানুষ পছন্দ করেছে, ঠিক তেমনই আগামী এপ্রিল নাগাদ ছবিটি মুক্তি পেলে একই ভাবে ছবিটি দেখার জন্য তাঁরা হলমুখী হবেন।

কলকাতায় নীল রায়ের সঙ্গে কায়নাত।

সবাই তো চাইছেন আপনার হাতেই গ্রেফতার হতে? প্রশ্ন শুনে হেসে ফেলে কায়নাতের উত্তর: ‘‘আমি আপ্লুত।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন