Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Abhinandan Varthaman

আকাশে ফিরলেন অভিনন্দন, পঠানকোটে উড়ান বায়ুসেনা প্রধানের সঙ্গে

মঙ্গলবার অভিনন্দন ও ধানোয়া দুজনে পাঠানকোট বিমান ঘাঁটি থেকে একটি প্রশিক্ষণ বিমান নিয়ে ওড়েন। এয়ার চিফ মার্শাল সামনের আসনে বসেন। পিছনের আসনে বসেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। ধানোয়া জানিয়েছেন, ১৯৮৮ সালে তাঁকেও একবার বিমান থেকে ইজেক্ট করতে হয়। কিন্তু সেবার কাজে ফিরতে তাঁর প্রায় ৯ মাস লেগিল গিয়েছিল। সেখানে অভিনন্দন মাত্র ৬ মাসেই নিজেকে উড়ানের জন্য ফিট করে ফেললেন।

এয়ার চিফ মার্শালের সঙ্গে উড়ানে অভিনন্দন বর্তমান। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

এয়ার চিফ মার্শালের সঙ্গে উড়ানে অভিনন্দন বর্তমান। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
পাঠানকোট শেষ আপডেট: ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৪:৫৩
Share: Save:

পাকিস্তান থেকে ফেরার পর প্রথমবার বিমান ওড়ালেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। পাঠানকোট থেকে মিগ-২১ নিয়ে ওড়েন তিনি। উইং কমান্ডারের সঙ্গে ছিলেন বায়ুসেনা প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়া। প্রায় ৩০ মিনিট আকাশে ছিলেন তাঁরা। পাকিস্তান থেকে ফেরার ছ’মাসের মধ্যেই ফের নিজের কাজে ফিরে গেলেন তিনি।

Advertisement

পুলওয়ামায় হামলার পর চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারিতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে জঙ্গি শিবির ধ্বংস করতে অভিযান চালায় ভারত। পরের দিন ভারতে আক্রমণ করতে আসে পাক বায়ুসেনার এফ-১৬ যুদ্ধবিমান। তৈরি ছিল ভারতীয় বিমান বাহিনীও। তাদের তাড়া করে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ৭-৮ কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে পড়ে উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের মিগ-২১ বাইসন। পাক বিমানের গুলিতে তাঁর বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হলে সেখানেই বিমান থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। পাকিস্তানি সেনার হাতে ধার পড়ে যান তিনি। বন্দি অবস্থায় তাঁর একটি ভিডিয়ো প্রকাশ পায়। সেখানে পাকিস্তানি সেনার ডেরাতে বসে চাপের মুখেও কোনও তথ্য তিনি দেননি। তাঁর সাহসিকতায় মুগ্ধ হয়ে যায় গোটা দেশ। শেষপর্যন্ত চাপের মুখে অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান। বীর চক্র সম্মান দেওয়া হয় অভিনন্দন বর্তমানকে।

এদিন তিনি যাঁর সঙ্গে আকাশে ওড়েন, সেই বিএস ধানোয়া ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধে অংশ নেন।পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি স্কোয়াড্রনকে নেতৃত্ব দেন তিনি। গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকবার মিগ নিয়ে ওড়েন এয়ার চিফ মার্শাল। মঙ্গলবার অভিনন্দন ও ধানোয়া দুজনে পাঠানকোট বিমান ঘাঁটি থেকে একটি প্রশিক্ষণ বিমান নিয়ে ওড়েন। এয়ার চিফ মার্শাল সামনের আসনে বসেন। পিছনের আসনে বসেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। ধানোয়া জানিয়েছেন, ১৯৮৮ সালে তাঁকেও একবার বিমান থেকে ইজেক্ট করতে হয়। কিন্তু সেবার কাজে ফিরতে তাঁর প্রায় ৯ মাস লেগিল গিয়েছিল। সেখানে অভিনন্দন মাত্র ৬ মাসেই নিজেকে উড়ানের জন্য ফিট করে ফেললেন।

আরও পড়ুন : গণেশ চতুর্থীতে চায়ের বিজ্ঞাপন নিয়ে দু'ভাগ নেট দুনিয়া

Advertisement

আরও পড়ুন : দুধের শিশুকে গ্রেফতারের ‘হুমকি’ পুলিশ বাবার! তীব্র প্রতিবাদ ‘অভিযুক্ত’-র!

#WATCH IAF Chief Air Chief Marshal BS Dhanoa flew a sortie with Wg Cdr Abhinandan Varthaman at Air Force Station Pathankot today in a MiG-21 trainer. It's the last sortie flown by IAF Chief in a fighter aircraft before retirement.They took off around 1130 hrs for a 30 min sortie. pic.twitter.com/retSoI3EVl

পাক সীমান্তের কাছে এই পাঠানকোট এয়ার বেসে আসছে আটটি অ্যাপাচে এএইচ-৬৪ই অ্যাটাক হেলিকপ্টার। তার আগেই এয়ার চিফ মার্শাল ও অভিনন্দন বর্তমানের এই উড়ান। অ্যাপাচে বিশ্বের অন্যতম আধুনিক লড়াকু হেলিকপ্টর। ২০১৫ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয় ভারত। সেখানে মোট ২২টি অ্যাপাচে ভারতকে বিক্রি করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.