Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শিলচর শহর ও চার ব্লকের নয়া কমিটি কংগ্রেসের

পুরনো কমিটি ভেঙে ব্লক কংগ্রেসের নতুন কমিটি গঠন করা হল কালাইন, কাটিগড়া, সোনাই ও বড়জালেঙ্গায়। আপাতত শুধু ব্লক কংগ্রেসের সভাপতির নাম ঘোষণা কর

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলচর ১৯ মার্চ ২০১৭ ০৩:১৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

পুরনো কমিটি ভেঙে ব্লক কংগ্রেসের নতুন কমিটি গঠন করা হল কালাইন, কাটিগড়া, সোনাই ও বড়জালেঙ্গায়। আপাতত শুধু ব্লক কংগ্রেসের সভাপতির নাম ঘোষণা করা হলেও ব্যতিক্রম শিলচর। বিক্ষোভের আশঙ্কায় সেখানে শহর কংগ্রেস কমিটিতে একই সঙ্গে সভাপতি ও কার্যকরী সভাপতি পদে যথাক্রমে অমিত চক্রবর্তী ও সজল বণিককে মনোনীত করা হয়েছে।

বিধানসভা নির্বাচনে দলের বিপর্যয়ের পর কাছাড় জেলায় কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব অনেকটাই কমে এসেছে। প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম রায় এখন আর কাছাড়ের সংগঠন নিয়ে কথা বলেন না। শিলচরে বীথিকা দেবকে দাঁড় করানোয় যাঁরা এক সময় সুস্মিতাদেবীর বিরুদ্ধাচরণ করেছিলেন, সরকার বদলের পর তাঁরাও ঝিমিয়ে পড়েছেন। তার পরও ঝুঁকি নিতে পারেননি সুস্মিতা দেব, কর্ণেন্দু ভট্টাচার্যরা।

বিধানসভা ভোটের টিকিট নিয়ে মতবিরোধের পর শিলচর শহর কংগ্রেস কমিটির সভাপতি পদে শৈবাল দত্ত ইস্তফা দিলে ওই পদের জন্য নিজেদের তৈরি করছিলেন অতনু ভট্টাচার্য ও সজল বণিক। দু’জনই সুস্মিতাদেবীর ঘনিষ্ঠ। তাই কাউকে না চটিয়ে কৌশলে সুস্মিতাদেবী সামনে নিয়ে আসেন অমিত চক্রবর্তীকে। বছর দুয়েক আগে তিনি সরকারি স্কুলের প্রধানশিক্ষক পদ থেকে অবসরও নিয়েছেন। অমিতবাবুকে নিযুক্তির প্রধান কারণ, তিনি অতনু ভট্টাচার্যের মামা। তাঁকে সভাপতি করা হলে ভাগ্নে দাবি থেকে সরে আসবেন। আর প্রবীণ অমিতবাবুর সঙ্গে কার্যকরী সভাপতি হিসেবে কাজ করতে সজল বণিকেরও আপত্তি থাকবে না।

Advertisement

অতনুবাবু এ নিয়ে নীরব থাকলেও তাঁর ঘনিষ্ঠদের বক্তব্য, নিজের ওয়ার্ডে পরপর তিনবার পুরসদস্য হয়েছেন তিনি ও তাঁর স্ত্রী। তাঁর উপর শহর সভাপতির দায়িত্ব দিয়ে কোনও রকমের ঝুঁকি নিতে চাননি সুস্মিতাদেবী। সে জন্যই সক্রিয় রাজনীতিতে নতুন, অমিতবাবুকে বাছাই করা হয়েছে।জেলা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পার্থরঞ্জন চক্রবর্তী জানিয়েছেন, কোনও কমিটিই আকস্মিক সিদ্ধান্তে হয়নি। গত বছরের সেপ্টেম্বরে তৃণমূল স্তরে সংগঠনের শক্তিবৃদ্ধির জন্য নানা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল। তার মধ্যে ছিল সব ক’টি ব্লক ও শহর কমিটির কাজকর্ম পর্যালোচনা করা। প্রয়োজনে কমিটি পুনর্গঠন। সে জন্য প্রত্যেক জায়গায় পর্যবেক্ষক নিয়োগ করা হয়। তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই প্রথম পর্যায়ে চারটি ব্লক ও শিলচর শহর কমিটি গঠন করা হয়েছে। নবনিযুক্ত ব্লক কংগ্রেস সভাপতিরা হলেন কালাইনে বিশাল সরকার, কাটিগড়ায় হোসেন আহমদ চৌধুরী, বড়জালেঙ্গায় বিজয় দেবরায় ও সোনাইয়ে খসরু আলম চৌধুরী।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement