Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বাজ বনাম বুড়ো বাইসন

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ০৫ মার্চ ২০১৯ ০৩:২৯
বায়ুসেনা-প্রধান বি এস ধানোয়া।—ফাইল চিত্র।

বায়ুসেনা-প্রধান বি এস ধানোয়া।—ফাইল চিত্র।

পাকিস্তানের ফ্যালকন (বাজ) তথা এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের মোকাবিলায় কেন মিগ-২১ বাইসনের মতো বুড়িয়ে যাওয়া বিমান দিয়ে পাঠানো হয়েছিল— বায়ুসেনা-প্রধান বি এস ধানোয়াকে সোমবার এই প্রশ্ন করা হয়। তিনি ব্যাখ্যা দেন, পরিকল্পিত অভিযান হলে, সেরা যুদ্ধবিমানই পাঠানো হয়। বালাকোটের জঙ্গি-শিবিরে হানার জন্য মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমান পাঠানোর উদাহরণ টেনে তাঁর পাল্টা প্রশ্ন, ‘‘ওই ক্ষেত্রে কি বাইসন পাঠানো হয়েছিল? কিন্তু শত্রুরা হামলা করলে, হাতে থাকা সব যুদ্ধবিমানই পাঠাতে হয়। সব বিমানই শত্রুর মোকাবিলায় সক্ষম।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘এই মিগ-২১ বাইসনকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। এতে আগের থেকে ভাল রেডার, আকাশ থেকে আকাশে ছোড়ার ক্ষেপণাস্ত্র-সহ ভাল অস্ত্র রয়েছে।’’ পাকিস্তান অস্বীকার করে গেলেও পাকিস্তানের এফ-১৬ ধ্বংস করেছে এই মিগ-২১ বিমানই।

তিনি মনে করিয়ে দেন, এমনই ঘটেছিল ১৯৬৫-র যুদ্ধে সরোগোঢায় পাক ঘাঁটিতে অভিযানের সময়। ফ্রান্সে তৈরি ধীর গতির মিস্তের বিমান নিয়েই পাকিস্তানের এফ-১০৪ স্টারফাইটার ধ্বংস করেন স্কোয়াড্রন লিডার এ বি দেবাইয়া।

Advertisement

তাঁর সেই কীর্তির কথা জানা যায় পরে। পাক সেনার নিযুক্ত এক ব্রিটিশ লেখকের লেখা থেকে। সে দিনের সেই নায়ককে মরণোত্তর মহাবীর চক্র দেওয়া হয় ১৯৮৮ সালে।

আরও পড়ুন

Advertisement