Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

প্রিয়ঙ্কার মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে তির্যক মন্তব্য সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৭ জানুয়ারি ২০১৯ ১৪:৩৯
প্রিয়ঙ্কা গাঁধী ও সুব্রহ্মণ্যম স্বামী।—ফাইল চিত্র।

প্রিয়ঙ্কা গাঁধী ও সুব্রহ্মণ্যম স্বামী।—ফাইল চিত্র।

ফের বিতর্কিত মন্তব্য সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর। এ বার তাঁর নিশানায় প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা। রাজীব তনয়ার বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ এনেছেন বিজেপির রাজ্যসভা সাংসদ। তাঁর দাবি, মানসিকভাবে সুস্থ নন প্রিয়ঙ্কা। তাঁর আচরণ অত্যন্ত হিংস্র। তাই জননেত্রী হওয়ার উপযুক্ত নন তিনি।

সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে স্বামী বলেন, ‘‘প্রিয়ঙ্কা গাঁধী একটি বিশেষ রোগে আক্রান্ত, যা জনজীবনের পক্ষে একেবারেই অনুকূল নয়। জননেত্রী হওয়ার উপযুক্ত নন উনি। ডাক্তারি ভাষায় ওই রোগকে বাইপোলারিটি বলা হয়। এই রোগে আক্রান্ত হলে মানুষের হিংস্র আচরণ প্রকাশ পায়। প্রিয়ঙ্কা ওই রোগে আক্রান্ত। লোকজনকে মারধর করার অভ্যাস রয়েছে ওঁর। বিষয়টি সকলের জেনে রাখা উচিত। বলা যায় না কখন মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন।’’

সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর এই অভিযোগ ভালভাবে নেননি নেটিজেনরা। তাঁদের কথায়, ‘সক্রিয় রাজনীতিতে সবে যোগ দিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা। তবে দীর্ঘদিন ধরে দলের হয়ে প্রচার করে আসছেন তিনি। আজ অবধি অস্বাভাবিক আচরণ করতে দেখা যায়নি তাঁকে। এ সব বলে প্রচারে থাকার চেষ্টা করছেন স্বামী।’ কেউ কেউ আবার ব্যঙ্গ করে বলেন, ‘মানসিক রোগ নিয়ে এ দেশে তেমন আলোচনা হয় না। ভালই হয়েছে বিষয়টি তুলে ধরেছেন বিজেপি সাংসদ। এতে তাঁর নিজের মানসিক অবস্থা আরও প্রকট হচ্ছে।’ এ ভাবে প্রকাশ্যে এক মহিলার বিরুদ্ধে মন্তব্যে স্বামীর উপর চটেছেন অনেকে।

Advertisement

আরও পড়ুন: লটারির নামে প্রতারণা, হাওয়ালাতে টাকা যাচ্ছে পাকিস্তানে, ধৃত দুই শিল্পকর্তা​

আরও পড়ুন: ভারতরত্ন-কে অসম্মানের অভিযোগ, জুবিন গর্গের বিরুদ্ধে এফআইআর বিজেপি-র​

নির্বাচনের আগে কাদা ছোড়াছুড়ি এবং ব্যক্তিগত আক্রমণ যদিও ভারতীয় রাজনীতিতে নতুন নয়। কিন্তু সক্রিয় রাজনীতিতে পা রাখার পর থেকেই লাগাতার প্রতিপক্ষের হাতে হেনস্থা হচ্ছেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সদ্য কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক পদ গ্রহণ করেছেন তিনি। পূর্ব উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনী প্রচারের ভারও তাঁর কাঁধে। আনুষ্ঠানিকভাবে যদিও এখনও কাজ শুরু করেননি তিনি। তবে বিজেপির তরফে আক্রমণ জারি রয়েছে। শনিবার তাঁর নিয়োগ নিয়ে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি বলেন, ‘‘শক্ত কাঁধের অভাব রয়েছে কংগ্রেসে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে তাই সুন্দর মুখের উপর ভরসা করতে হচ্ছে ওদের।’’ দেখতে সুন্দর হলে কী হবে? প্রিয়ঙ্কা নেত্রী হওযার যোগ্য নয় বলে তার আগে মন্তব্য করেছিলেন বিজেপি নেতা ও বিহারের মন্ত্রী বিনোদনারায়ণ ঝা।

(কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement