Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

দেশ

Biplab Deb: হাঁসে অক্সিজেন থেকে গরুর দুধ বেচে দশ লাখ, যে সব বিপ্লব-বাণী ভাবিয়েছে বিজেপিকেও

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ১৪ মে ২০২২ ১৯:০৮
পদত্যাগ করেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব।  শনিবার বিকাল চারটে নাগাদ রাজ্যপালকে গিয়ে ইস্তফা দিয়ে এসেছেন তিনি। তবে ক্ষমতায় থাকাকালীন তাঁর একের এক পর মন্তব্য নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। বিপ্লবের বাণীতে অস্তস্তিতে ছিল বিজেপিও।

এক বার তিনি আগরতলায় এক অনুষ্ঠানে বলেন, মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট ছিল। তার ফলে অন্ধ ধৃতরাষ্ট্রকে কুরুক্ষেত্রে বর্ণনা দিতে পেরেছিলেন সঞ্জয়।  তাঁর মতে, সেই যুগে কৃত্রিম উপগ্রহেরও অস্তিত্ব ছিল।
Advertisement
এক আলোচনা সভায় বিপ্লব বলেন,‘‘সরকারি চাকরির জন্য নেতাদের পিছনে ঘুরে লাভ কী? স্নাতকদের উচিত গরু পালন করা। গরুর দুধ বেচে তাঁরা ১০ বছরে ১০ লক্ষ টাকা আয় করতে পারবেন।’’

শিক্ষিত বেকার যুবকদের উদ্দেশে পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘‘আপনারা হাঁস পুষুন। তা হলে ডিমও পাবেন, তা বিক্রি করে আয় করতে পারবেন। আবার পরিবেশে অক্সিজেনের মাত্রাও বৃদ্ধি পাবে।’’ তাঁর মতে, হাঁস পরিবেশে অক্সিজেন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।
Advertisement
মিস ওয়ার্ল্ড নিয়ে তাঁর মন্তব্যেও বিতর্কের ঝড় ওঠে। তিনি বলেন, বিশ্বের দরবারে ভারতীয় নারী বলতে মিস ওর্য়াল্ড ঐশ্বর্য রাইকে বোঝায়। প্রাক্তন মিস ওয়ার্ল্ড ডায়ানা হেডেন ভারতীয় নারীর প্রতিনিধি হতে পারেন না। অথচ ডায়ানার জন্ম হায়দরাবাদের এক ভারতীয় খ্রিস্টান পরিবারে।

তাঁর মতে, আগেকার দিনে ভারতীয় মহিলারা প্রসাধন ব্যবহার করতেন না। তাঁরা শ্যাম্পু ব্যবহার করতেন না, মেথির জল আর কাদা-মাটি দিয়ে চুল ধুতেন। বিভিন্ন সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা আসলে মার্কেটিং মাফিয়াদের কৌশল। তাঁর এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে দেশ-বিদেশে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

সিভিল সার্ভিস দিবসে তাঁর মন্তব্যও ছিল মনে রাখার মতো! বিপ্লব বলেন, ‘‘মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়াররা নন, সিভিল ইঞ্জিনিয়াররা আসুন সিভিল সার্ভিসে।’’

সরকারি অনুষ্ঠানের এক মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ত্রিপুরার বিজেপি সরকারের পিছনে লাগলে নখ উপড়ে নেওয়া হবে।

রবীন্দ্রজয়ন্তীতে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ব্রিটিশ শাসনের প্রতিবাদ জানিয়ে নোবেল পুরস্কার প্রত্যাখান করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

রকমারি এই ধরনের মন্তব্যে বিল্পব দেব নিজের রেকর্ড নিজেই ভেঙেছেন। এক বুদ্ধপূর্ণিমার দিন তিনি বলেন, ‘‘ভগবান বুদ্ধ বৌদ্ধধর্ম প্রচারে পায়ে হেঁটে চীন-জাপান-মায়ানমার সফর করেন।’’

তাঁর মন্তব্য নিয়ে নেটমাধ্যমের ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের তুফান ছুটলেও বিতর্কিত মন্তব্যে বিপ্লব দেব ছিলেন অবিচল ।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়েও মন্তব্য করেন বিপ্লব দেব। তিনি বলেন, ‘‘মোদীজির বৃদ্ধা মা রয়েছেন। কিন্তু তিনি প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে থাকেন না। ১০ ফুট বাই ১২ ফুট একটি ঘরে থাকেন। এখনও তাঁর এক ভাই মুদির দোকান চালান। আর এক ভাই অটো চালক। সারা দুনিয়ায় আর কোথাও কি এমন একজনও প্রধানমন্ত্রী আছেন?”

২০১২ সালে গেরুয়া শিবিরে্র এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, কমিউনিস্টরা যদি সব দেশে থাকতে পারেন, বিজেপি নয় কেন? তাঁর মতে, এ বার বিজেপি দখল নেবে নেপাল-শ্রীলঙ্কার।