Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Army

খুব শীঘ্রই যুদ্ধক্ষেত্রে মহিলা সৈনিকরাও, জানিয়ে দিলেন সেনাপ্রধান

জেনারেল বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে সেনাবাহিনীর পুলিশ বিভাগে নেওয়া হবে মহিলাদের। পরে তাঁদের সেনা জওয়ান পদে আনা হবে। বর্তমানে মহিলাদের সেনাবাহিনীতে মূলত চিকিৎসা, আইনতগত কাজ, শিক্ষা, সিগন্যালিং এবং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের কাজে নিয়োগ করা হয়।

সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত।— ফাইল চিত্র

সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত।— ফাইল চিত্র

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ০৪ জুন ২০১৭ ১৯:৪২
Share: Save:

সম্মুখসমরে এবার মহিলা সেনাকর্মীরাও। এত দিন সেনাবাহিনীতে যুদ্ধ বা সীমান্ত প্রহরার মতো ক্ষেত্রে মহিলা কর্মীদের নিয়োগ করা হত না। রবিবার সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন, ভারতীয় সেনা মহিলা কর্মীদেরও যুদ্ধে পাঠাবে। বিষয়টি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়া খুব দ্রুত এগোচ্ছে বলে তিনি এ দিন জানিয়েছেন। সেনাবাহিনী কেন্দ্রীয় সরকারের সবুজ সঙ্কেতের অপেক্ষায় রয়েছে বলেও তিনি এ দিন ইঙ্গিত দিয়েছেন।

জেনারেল বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে সেনাবাহিনীর পুলিশ বিভাগে নেওয়া হবে মহিলাদের। পরে তাঁদের সেনা জওয়ান পদে আনা হবে। বর্তমানে মহিলাদের সেনাবাহিনীতে মূলত চিকিৎসা, আইনতগত কাজ, শিক্ষা, সিগন্যালিং এবং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের কাজে নিয়োগ করা হয়। মহিলাদের যুদ্ধক্ষেত্রে নিয়োগ করা হবে কি না, তা নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পরই রাওয়াত জানিয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের ছাড়পত্র মিললেই তিনি মহিলাদের যুদ্ধক্ষেত্রে নিয়োগ করতে প্রস্তুত। এ বার তিনি জানালেন, মহিলাদের যুদ্ধক্ষেত্রে যাওয়ার ছাড়পত্র দিতে সেনা এখন প্রস্তুত। প্রক্রিয়াও অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে। শুধু চূড়ান্ত ছাড়পত্রের অপেক্ষা।

আরও পড়ুন: দেওরকে বিয়ে না করার মুচলেকা দিন! পদোন্নতির শর্ত শহিদ সেনার স্ত্রীকে

হাতে গোনা কয়েকটি দেশ মহিলাদের যুদ্ধে যাওয়ার ছাড়়পত্রপ দেয়। তারা হল, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, আমেরিকা, ব্রিটেন, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, নরওয়ে, সুইডেন ও ইজরায়েল। যুদ্ধবন্দি হলে মহিলাদের ওপর অকথ্য অত্যাচার হতে পারে, এই যুক্তিতেই অধিকাংশ দেশ মহিলাদের সরাসরি যুদ্ধে যোগ দিতে দেয় না।

গত বছরই ভারতীয় বায়ুসেনা ৩ মহিলা অফিসারকে ফাইটার পাইলট পদে নিয়োগ করেছে। মহিলাদের যুদ্ধক্ষেত্রে পাঠানোর বিষয়টি নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছে নৌসেনাও। দেশের স্থলবাহিনীর প্রধানও এ বার জানিয়ে দিলেন, মহিলাদের যুদ্ধক্ষেত্রে যাওয়ার ছাড়পত্র যাতে দেওয়া যায়, সে বিষয়ে বাহিনী সচেষ্ট হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE