আইএসদের হামলার শিকার এবার আফগান শিখরা। আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথেই আত্মঘাতী জঙ্গি বিস্ফোরণে মৃত্যু হল ১৯ জনের। তাঁদের মধ্যে ১৭ জনই শিখ এবং হিন্দু। গুরুতর জখম হয়েছেন আরও ২০ জন। রবিবার আফগানিস্তানের জালালাবাদে এই হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।

মৃতদের মধ্যে আবতার সিংহ খালসা নামে এক শিখ রয়েছেন। অবতার আফগানিস্তানের শিখ সম্প্রদায়ের নেতা। চলতি বছরের অক্টোবরে আফগান সংসদে নির্বাচনে লড়ার কথা ছিল তাঁর।

রাষ্ট্রপতি আশরফ গনি দু’দিনের নানগরহর প্রদেশ সফরে জালালাবাদে একটি হাসপাতাল উদ্বোধনে এসেছিলেন। তারপর রাজ্যপালের বাসভবনে একটি বৈঠকের পরিকল্পনা ছিল গনির। আফগানিস্তানের শিখ সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা ঠিক করেছিলেন নিজস্ব কিছু সমস্যা নিয়ে বৈঠকের পর প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করবেন। রাজ্যপালের বাসভবনের কাছেই একটি বাজারে পৌঁছনোর পরই আত্মঘাতী বিস্ফোরণ হয়, তাতে মৃত্যু হয় মোট ১৯ জনের। হামলার পরই তার দায় স্বীকার করেছে আইএস।

আরও পড়ুন: ট্রাম্প-বিরোধী মিছিলে উত্তাল আমেরিকা

হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ টুইট করে হামলার নিন্দা করেছেন। একে অত্যন্ত ‘জঘন্য এবং নিন্দনীয়’ ঘটনা বলে মন্তব্য করেছে কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস। ভারতীয় দূতাবাসের তরফ থেকে টুইট হামলায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়েছে। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয়েছে এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর প্রয়াজনীয়তা তুলে ধরা হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জখম এক শিখ। ছবি: এএফপি।