• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মাহিন্দার সঙ্গে বৈঠক মোদীর

modi-mahinda
ফাইল চিত্র।

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় চিনের সঙ্গে চলতি সংঘাতের পাশাপাশি তাদেরই ঘনিষ্ঠ আর এক প্রতিবেশী রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আজ শীর্ষ পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করল ভারত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভিডিয়োর মাধ্যমে আলোচনা করলেন সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষের সঙ্গে।

কোভিড কবলিত বিশ্বে সমন্বয় বাড়ানো, বুদ্ধ-কূটনীতিকে উস্কে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক বন্ধন সুদৃঢ় করার মতো বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক। ভারত-চিন সীমান্ত নিয়েও কথা হয়েছে কি? এই প্রশ্নের জবাবে বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে, আঞ্চলিক গুরুত্ব রয়েছে এমন সমস্ত বিষয় নিয়েই মত বিনিময় হয়েছে। শ্রীলঙ্কায় তামিল-অধিকার নিয়ে বৈঠকে মোদী সরব হয়েছেন বলেও বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে খবর। 

বৈঠকের পরে একটি যৌথ বিবৃতিও দিয়েছে ভারত এবং শ্রীলঙ্কা। সেখানে চিনকে বাইরে রেখে গড়া এশিয়ার আঞ্চলিক গোষ্ঠীগুলির (সার্ক, বিমস্টেক) দেশগুলির মধ্যে সহযোগিতা এবং সম্ভাবনা বৃদ্ধির বিষয়টিকে রাখা হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রকের মতে বর্তমান পরিস্থিতিতে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। যৌথ বিবৃতিতে শ্রীলঙ্কায় বসবাসকারী তামিল জনগোষ্ঠীর আশা, আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ করার বিষয়টিকেও রাখা হয়েছে, দক্ষিণ ভারতের রাজনীতিতে যা গুরুত্বপূর্ণ। যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মাহিন্দা আশ্বাস দিয়েছেন, তাঁর সরকার তামিল-সহ সমস্ত জনজাতিকে সঙ্গে নিয়ে এগোবে।

বিষয়টি আপাতত ভারতের জন্য স্বস্তিদায়ক। গত বছর অগস্টে শ্রীলঙ্কায় ভোটের পরে আশঙ্কা করা হচ্ছিল, সে দেশের তামিলরা হয়তো কোণঠাসা হয়ে পড়বে। কারণ মাহিন্দা প্রেসিডেন্ট থাকাকালীনই দেশের তামিল জঙ্গি আন্দোলনকে দমন করা হয়েছিল। বিদেশ মন্ত্রকের বক্তব্য, সেই চাপ কমাতে শ্রীলঙ্কা সরকারের সঙ্গে সহযোগিতার হাত প্রশস্ত করাটাই লক্ষ্য সাউথ ব্লকের। আজ সেই পথেই একধাপ এগোনো গেল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন