চিনা প্রেসিডেন্ট শি চিনফিংয়ের প্রশংসা শোনা গেল ডোনাল্ড ট্রাম্পের মুখে। সম্প্রতি চিনের কমিউনিস্ট পার্টি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, মাত্র দু’বারের জন্য প্রেসিডেন্ট পদে দাঁড়ানোর নিয়ম বন্ধ করতে চলেছে তারা। নতুন নিয়ম চালু হলে বর্তমান প্রেসিডেন্ট শি চিনফিং আজীবন দেশের প্রেসিডেন্ট পদে বহাল থাকবেন। যা শুনে ট্রাম্প বলেছেন, ‘‘চিনফিং এখন গোটা জীবনের জন্য প্রেসিডেন্ট। উনি মহান।’’

ট্রাম্পের ওই বক্তব্যের একটি অডিও সম্প্রচার করেছে একটি প্রথম সারির মার্কিন চ্যানেল। তাদের দাবি, গত কাল ফ্লরিডার একটি ফান্ডরেজিং অনুষ্ঠানের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে প্রেসিডেন্ট এই কথাগুলি বলেছেন। শি-কে উদ্দেশ করে অডিওটিতে ট্রাম্পকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘দেখুন উনি এটা করতে সক্ষম হলেন। এটা মহান বিষয়। হয়তো আমরাও এক দিন এটা নিয়ে ভাবনা-চিন্তা করব।’’ মার্কিন প্রেসিডেন্টের শেষের এ কথাটি নিয়েই শুরু হয়েছে জল্পনা। অনেকেই মনে করছেন আমেরিকাতেও আজীবন প্রেসিডেন্ট পদ রেখে দেওয়ার পক্ষে সওয়াল করেছেন ট্রাম্প। পরে অন্য সংবাদমাধ্যম হোয়াইট হাউসের কাছে বিষয়টির ব্যাখ্যা চাইলে সরকারি ভাবে কেউ মন্তব্য করতে চাননি।

আরও পড়ুন: ওজন বড় দায়, জাঙ্ক ভুলে স্যালাড-স্যুপে মন ট্রাম্পের

তবে বিষয়টি নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিরোধীরা। ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধি রো খন্না টুইট করেছেন, ‘‘এটা নিছক মজা কি না জানি না, প্রেসিডেন্ট শি-র মতো আজীবন পদে থাকার পক্ষে সওয়াল করার অর্থ কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্টের একেবারেই অমার্কিনসুলভ কথা বলা। জর্জ ওয়াশিংটন নিশ্চয়ই এটা শুনলে নিজের কবরে হাসতে হাসতে গড়াগড়ি খাবেন।’’ আমেরিকাতেও কেউ দু’বারের বেশি প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়তে পারেন না। ব্যতিক্রম ছিলেন প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট। ১৯৩২ সাল থেকে পরপর চার বার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। ১৯৫১ সালে মার্কিন সংবিধান সংশোধিত হওয়ার পর থেকে আর কেউই দু’বারের বেশি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়াতে পারেন না।