• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কুলভূষণ মামলায় পাঁচ আর্জি খারিজ, ধাক্কা পাকিস্তানের

International Court of Justice
কুলভূষণ যাদব মামলায় আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারকরা।—ছবি রয়টার্স।

আন্তর্জাতিক আদালতে কুলভূষণ যাদব মামলার শুনানিতে বড় ধাক্কা খেল পাকিস্তান। তাদের পাঁচটি আর্জি খারিজ হয়েছে।

ভারতীয় নৌবাহিনীর প্রাক্তন অফিসার কুলভূষণকে চর সন্দেহে পাকিস্তানে গ্রেফতার হওয়ার পরে ২০১৭-র এপ্রিলে তাঁর ফাঁসির সাজা শুনিয়েছে সেখানকার সামরিক আদালত। এ ব্যাপারে আপত্তি তুলে পরের মাসেই আন্তর্জাতিক আদালতের দ্বারস্থ হয় নয়াদিল্লি। আন্তর্জাতিক আদালত পাকিস্তানকে আগেই বলেছিল, যত ক্ষণ না পর্যন্ত তারা রায় দিচ্ছে, তত ক্ষণ পর্যন্ত কুলভূষণের সাজা কার্যকর করা চলবে না। এই পরিস্থিতিতেই আন্তর্জাতিক আদালতে কুলভূষণকে ভারতীয় চর হিসেবে প্রমাণ করতে মরিয়া পাকিস্তান। তবে এখনও পর্যন্ত তারা যে সব ঘুঁটি সাজিয়েছে, তার প্রায় সবগুলিই আদালত খারিজ করেছে।

চার দিনের শুনানি ইসলামাবাদের যে সব আর্জি আদালত খারিজ করেছে, সেগুলি হল, পাকিস্তানের ‘অ্যাড হক বিচারপতি’ তাসাদুক হোসেন জিলানি কয়েক দিন আগে হৃদ‌রোগে আক্রান্ত হওয়ায় তাঁর জায়গায় নতুন ‘অ্যাড হক বিচারপতি’ নিয়োগের প্রস্তাব দেয় ইসলামাবাদ। তত ক্ষণ পর্যন্ত মামলার শুনানি স্থগিতের আর্জি জানিয়েছিলেন পাক অ্যাটর্নি জেনারেল আনওয়ার মনসুর খান। আন্তর্জাতিক আদালত সেই আর্জি খারিজ করে। তার পরেই বিচারপতি জিলানি আজ শুনানিতে উপস্থিত হন। কুলভূষণের তথাকথিত ‘স্বীকারোক্তি’ দ্য হেগ-এর আদালতের সামনে শোনাতে চেয়েছিল ইসলামাবাদ। সেটিও গ্রাহ্য হয়নি। ভারতীয় কূটনীতিক জে পি সিংহকে জেরা করার জন্যও আর্জি জানিয়েছিল পাকিস্তান। গত বছরে তিনিই কুলভূষণের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পাকিস্তানের জেলে গিয়েছিলেন। জানিয়েছিলেন, কুলভূষণ খুব খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন। এ ছাড়া, ধৃত কুলভূষণের সঙ্গীদের আন্তর্জাতিক আদালতে সাক্ষী হিসেবে নিয়ে জন্যও আসার আবেদনও করা হয়েছিল। এ সবই কোর্ট খারিজ করেছে। শুনানির সময়ে ভারতের তরফে অভিযোগ আনা হয়, পাকিস্তানের সামরিক আদালতে বিচারের প্রক্রিয়া অস্বচ্ছ। ফলে কুলভূষণকে মুক্তি দেওয়া হোক। 

পাক প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সেখানকার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকেও এ দিন কূলভূষণ মামলার শুনানির বিষয়ে জানিয়েছেন পাক বিদেশ মন্ত্রকের কর্তারা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন