একই পঙ্‌ক্তিতে বসে ভোজ সারছেন সকলে। রয়েছেন বুদ্ধ, যিশু, এমনকী সিদ্ধিদাতা গণেশও। খাদ্য তালিকায় যেমন রয়েছে বার্গার, তেমনই রয়েছে ভেড়ার মাংসও। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার একটি টিভি চ্যানেলে সম্প্রচারিত এমন এক বিজ্ঞাপনকে ঘিরেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক। বিষয়টি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে নয়াদিল্লির বিদেশ মন্ত্রকও।

ঘটনার সূত্রপাত দিন কয়েক আগে। অস্ট্রেলিয়ার মিট ইন্ডাস্ট্রি লবি একটি বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন তৈরি করে। যার নাম দেওয়া হয়েছে, ‘ইউ উইল নেভার ল্যাম্ব অ্যালন’। যাতে দেখা গিয়েছে বুদ্ধ, গণেশদের এক সঙ্গে বসে মাংস খেতে। বিজ্ঞাপনটি সম্প্রচারিত হতেই হইচই পড়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী ভারতীয়দের মধ্যে। বিষয়টি নিয়ে তাঁরা ক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। অভিযোগ, পুরাণ মতে গণেশ নিরামিশাষী। বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়েছে তিনি মাংস খাচ্ছেন। বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নেওয়ার জন্য ভারতীয় হাইকমিশন যাতে কার্যকর পদক্ষেপ করে, তারও অনুরোধ জানানো হয়।

সেই বিতর্কিত বিজ্ঞাপন

 

এর পরই বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় হাইকমিশন অস্ট্রেলিয়ার সংশ্লিষ্ট বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করে। বিষয়টি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়াও জানায়। হাইকমিশন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আপত্তিকর এই বিজ্ঞাপন অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী ভারতীয়দের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে।

আরও পড়ুন: বন্দুকবাজের গুলি, ডালাসে নিহত ৭

যদিও মিট ইন্ডাস্ট্রির দাবি, বিজ্ঞাপনটিতে আপত্তিকর কিছু নেই। তাদের মন্তব্য, ভেড়ার মাংস সব সম্প্রদায়ের মানুষেরই ভীষণ প্রিয়, তা দেখানোর জন্যই এই বিজ্ঞাপনটি তৈরি করা হয়েছে। কোনও ধর্মীয় আবেগে আঘাত দেওয়ার জন্য নয়। তবে, এই যুক্তি মানতে নারাজ ভারতীয়রা। বিষয়টি নিয়ে মাংস বিভাগ ‘মিট অ্যান্ড লাইভস্টক অস্ট্রেলিয়া’র কাছেও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।