ইজ়রায়েল-অধিকৃত পশ্চিম ভূখণ্ডের বেত উর আল-ফাকুয়া গ্রামের জলপাই গাছের নীচে বসে মুফতিয়া তালিব ফোঁস করে উঠলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। বললেন, ‘‘ঈশ্বর যেন ওঁকে শেষ করে দেন!’’ 

মার্কিন কংগ্রেসের ‘অ-শ্বেতাঙ্গ’ সদস্য রশিদা তালিবের ঠাকুরমা মুফতিয়া এখন শিরোনামে। রশিদার কাছে তিনি দ্বিতীয় মায়ের মতো। সম্প্রতি রশিদা ঠাকুরমার সঙ্গে দেখা করতে পশ্চিম ভূখণ্ডে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের চাপের মুখে ইজ়রায়েল প্রশাসন রশিদা এবং তাঁর সঙ্গী কংগ্রেস সদস্য ইলান ওমরকে ঢুকতে অনুমতি দেয়নি। প্রাথমিকভাবে তারা বলেছিল, রশিদা পশ্চিম ভূখণ্ডে আসতে পারেন। তার পর দিন, অর্থাৎ শুক্রবার আবার ইজ়রায়েল বলে, মানবিকতার খাতিরে তারা রশিদাদের ঢুকতে দেবে। এ বার আপত্তি জানান রশিদারাই। তাঁরা বলেন, কংগ্রেস সদস্যদের অপমান করার জন্য শর্ত চাপিয়েছে ইজ়রায়েল। এর মধ্যে ট্রাম্প টুইটে লেখেন, ‘‘রশিদা ঠাকুরমার সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে ইজ়রায়েলি অফিসারদের কাছে চিঠি লিখলেন। অনুমতি যে-ই দেওয়া হল, তখন উনি আপত্তি জানালেন। লাভ তো হল রশিদার ঠাকুরমার, ওঁকে রশিদার মুখ দেখতে হল না!’’ এই টুইটেই ক্ষুব্ধ মুফতিয়া তালিব। তিনি বলেন, ‘‘ট্রাম্প বলছেন, রশিদা না আসায় আমি খুশি! ঈশ্বর যেন ওঁকে শেষ করে দেন।’’