জঙ্গি হানার চরম সতর্কতা জারি করা হল ব্রাসেলসে।

ব্রাসেলসের সবকটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় জারি হল ‘রেড অ্যালার্ট’। সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হল, যে কোনও মুহূর্তে ব্রাসেলসের যে কোনও জায়গায় ঘটে যেতে পারে জঙ্গি হানার ভয়াবহ ঘটনা। যাতে জনজীবন পুরোপুরি বিপর্যস্ত হয়ে যেতে পারে। রবিবার পর্যন্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ব্রাসেলসের যাবতীয় মেট্রো পরিষেবা। সাবওয়েগুলিতে বসানো হয়েছে কড়া পুলিশ পাহারা। কোনও কোনও স্পর্শকাতর এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে আধা সেনাও। প্রতিটি নাগরিককে জনসমাবেশ, শপিং মল বা কনসার্ট হলে যাওয়ার আগে যথেষ্ট সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। শহরে বড় কোনও ফুটবল ম্যাচ থাকলে সেগুলিও বাতিল করে দিতে বলা হয়েছে। ব্রাসেলস ছাড়া বেলজিয়ামের অন্যান্য শহরেও সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তবে তা তুলনায় কম মাত্রার।

প্যারিস হামলার ঘটনায় জড়িতদের বেশির ভাগেরই আস্তানা ছিল ব্রাসেলসে। ওই জঙ্গিদের মধ্যে এক জনের হদিশ মেলেনি এখনও। তার নাম- সালাহ আবদেসলাম। প্যারিসে হামলা চালিয়ে সে ব্রাসেলসেই পালিয়ে গিয়েছে বলে পুলিশের সন্দেহ। তার খোঁজে গত কয়েক দিনে ব্রাসেলস শহর কার্যত, ঢুঁড়ে ফেলেছে বেলজিয়ান পুলিশ।

ও দিকে, তুরস্কের পুলিশ জানিয়েছে, তারা এক বেলজিয়ান নাগরিককে আজ গ্রেফতার করেছে। তাদের সন্দেহ, প্যারিসে হামলার ঘটনায় ওই বেলজিয়ান নাগরিকও জড়িত ছিল।