মার্কিন সফরে ফের অস্বস্তিতে পড়লেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এ বার ওয়াশিংটনে তাঁর বক্তৃতা চলাকালীনই বালুচিস্তানে পাক সেনার নৃশংসতা নিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন একদল সমাজকর্মী। বালুচিস্তানের স্বাধীনতার দাবিতে স্লোগানও দেন তাঁরা।

তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে শনিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পা রাখেন ইমরান খান। তার পর রবিবার ওয়াশিংটন ডিসির অ্যারিনা ওয়ান স্টেডিয়ামে, সেখানে বসবাসকারী পাকিস্তানিদের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

ইমরান খানের সেই বক্তৃতা চলাকালীনই দর্শকাসন থেকে আচমকা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বালুচিস্তানের স্বাধীনতাকামী একদল যুবক। বালুচিস্তানে পাক সেনা অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান তাঁরা। বালুচিস্তানকে স্বাধীনতা দেওয়ার দাবি তোলেন। 

আরও পড়ুন: সফরের শুরুতেই বিড়ম্বনা, ইমরানের অভ্যর্থনাই করল না মার্কিন প্রশাসন

আচমকা এই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েন ইমরান। তবে তার মধ্যেই বক্তৃতা চালিয়ে যান তিনি। বিক্ষোভকারীদের শান্ত হতে অনুরোধ জানান দর্শকদের একাংশও। শুরু হয় ঠেলাঠেলিও। তাতে শেষমেশ এগিয়ে আসেন স্টেডিয়ামে মোতায়েন নিরাপত্তাকর্মীরা। বিক্ষোভকারীদের বার করে নায়ে যান তাঁরা। গোটা ঘটনার একটি ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েছে।

বালুচিস্তানে পাক সেনার নৃশংসতা, মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং একের পর এক বাসিন্দার নিখোঁজ হওয়া নিয়ে বহুদিন ধরেই প্রতিবাদ জানিয়ে আসছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী বালোচ নাগরিকরা। ইমরানের সফর চলাকালীনও তা অব্যাহত। গত দু’দিন ধরে সেখানে ‘মোবাইল বিলবোর্ড ক্যাম্পেন’ শুরু করেছেন তাঁরা, যার আওতায় সে দেশের অলিগলিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে একাধিক গাড়ি, যার গায়ে বালুচিস্তানে মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে পোস্টার লাগানো রয়েছে।

আরও পড়ুন: তসলিমারা প্রিয়ার পাশে, নরম হাসিনা​

এর আগে, ইমরান খানের সফরের বিরোধিতা করে মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট (এমকিউএম)-সহ আরও বেশ কিছু সংখ্যালঘু সংগঠন ওয়াশিংটনে বিক্ষোভ দেখায়। পাকিস্তানে সংখ্যালঘু খ্রিস্টানদের নিপীড়ন নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের হস্তক্ষেপের দাবিও ওঠে। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।