Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

লাইফস্টাইল

চুলে এখনও হোলির রং, এই ঘরোয়া উপায়গুলি ট্রাই করে দেখুন তো!

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৩ মার্চ ২০১৮ ০৯:০৭
গত দু’দিন ধরে চুটিয়ে রং খেলেছেন নিশ্চয়ই। হাতে-পায়ে-সারা গায়ে এমনকী চুলেও লাল-নীল-হলুদ-সবুজ-বেগুনির ছোঁয়া। রং ওঠানোর চেষ্টা তো কম করেননি। ফিকে হয়ে গেলেও এখনও লেগে রয়েছে দাগ। সাবান-শ্যাম্পু দিয়ে ঘষে ঘষেও কোনও লাভ হয়নি। কোনও রকমে হাত-ঢাকা জামা পরে কয়েক দিন চালানো যেতে পারে। তবে চুলে রঙের দাগ ওঠাবেন কী করে? ভাবছেন কী করবেন? উপায় আছে আপনার ঘরেই। চুলে দোলের রঙের দাগ ওঠানোর জন্য এই কয়েকটি ঘরোয়া উপায় কাজে লাগিয়ে দেখতে পারেন।

একটি পাত্রে ৫ টেবল চামচ ময়দার সঙ্গে ২ টেবল চামচ মুসাম্বির রস মেশান। এ বার তাতে সামান্য জল দিয়ে বেশ গাঢ় পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। চুলের যেখানে যেখানে রং লেগে রয়েছে সেখানে ওই পেস্টটা ভাল করে মাখিয়ে নিন। আধ ঘণ্টা পর হালকা গরম জলে মাথা ধুয়ে ফেলুন। মুসাম্বিতে ন্যাচারাল ব্লিচিং এজেন্ট থাকে। ফলে খুব সবজেই চুল থেকে হোলির রং উঠে যাবে।
Advertisement
মুসাম্বির মতোই চুলের রং ওঠাতে নারকেল খুব কাজে আসে। একটি ছোট বাটিতে ৫ টেবল চামচ নারকেলের দুধের সঙ্গে ৩ টেবল চামচ নারকেল তেল ভাল করে মিশিয়ে নিন। এ বার তা চুলে মাখিয়ে নিন। এর পর মাথায় হাল্কা ভাবে মাসাজ করে নিন। এক ঘণ্টা এ ভাবেই থাকুন। এ বার ঈষদুষ্ণ গরম জলে শ্যাম্পু করে নিন। নারকেল তেল চুলের রং ফিকে করে দেবে। পাশাপাশি, ড্যামেজড হেয়ার সামলাবে নারকেলের দুধ।

কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে তার গুঁড়ো মিশিয়ে নিন ১ চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে। এ বার তাতে ২ টেবল চামচ জল দিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করুন। এ বার তা ভাল ভাবে চুলের গোড়ায় মাখিয়ে নিন। মিনিট কুড়ি রেখে ঠান্ডা জলে মাথা ধুয়ে ফেলুন। কমলালেবু এবং বেকিং সোডা এক্সফলিয়েট করতে সাহায্য করে। ফলে চুলের গোড়ায় রং লেগে থাকলে তা ওঠাতে এটা খুবই কাজে আসবে।
Advertisement
৩ টেবল চামচ ওটমিলে ২ টেবল চামচ করে মুসাম্বির রস এবং মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এ বার ওই পেস্টটা চুলের গো়ড়ায় ভাল করে মাখিয়ে নিন। সামান্য মাসাজ করুন। মিনিট চল্লিশেক এ ভাবে রেখে দিন। গরম জলে মাথা ধুয়ে ফেলুন। জল দিয়ে মাথা ধোওয়ার সময় সার্কুলার মোশনে হাল্কা স্ক্রাবও করে নিন। দেখবেন চুল থেকে নিমেষে গায়েব হয়ে যাবে রঙের দাগ। মধু রঙের দাগ হাল্কা করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ওটমিল স্কিন ইরিটেশন কমায়।

একটা বাটিতে ৩ টেবল চামচ দইয়ের মধ্যে একটি ডিমের কুসুম ফেটিয়ে নিন। এর মধ্যে ৩ টেবল চামচ মুসাম্বির রস ফেলে দিন। এ বার ওই পেস্টটি চুলের গোড়া থেকে ভাল করে মেখে নিন। ঘণ্টাখানেক এ ভাবেই থাকার পর গরম জলে শ্যাম্পু করে নিন। ড্রাইনেস কমার সঙ্গে সঙ্গে চুলে রঙের দাগও উঠে যাবে।