Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১২ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সম্প্রীতির সুপারম্যান

পাড়ার ছেলে, ইস্টবেঙ্গলের সাপোর্টার গুড্ডু এসে বসল আমাদের পাশে — লেখক সন্দীপ ভট্টাচার্য

সংগৃহীত প্রতিবেদন
১১ জুলাই ২০২২ ০৬:০৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি: লেখক সন্দীপ ভট্টাচার্য

প্রতীকী ছবি: লেখক সন্দীপ ভট্টাচার্য

Popup Close

৫ জুলাই ২০০৩, কলকাতা ডার্বির বড় ম্যাচ ছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইস্টবেঙ্গল আর মোহনবাগানের। ইস্টবেঙ্গল ৩-০ তে হারিয়ে দেয় মোহনবাগানকে। অবিরাম গালিগালাজ, মারপিট আর অশোভন আচরণে গ্যালারি ছিলো উত্তপ্ত।

পাড়ায় ফিরে বল খেলার মাঠের ধারে বসে আছি। ভরা আষাঢ়ের গোমড়ামুখের আকাশ থেকে হঠাৎ বৃষ্টি নামল অঝোরে। দেখলাম আমাদেরই পাড়ার ছেলে, ইস্টবেঙ্গলের সাপোর্টার গুড্ডু এসে বসল আমাদের পাশে।

বলে উঠলো— খেলায় তো হার জিত থাকবেই। কেউ জিতবে আর কেউ হারবে। কিন্তু আসল ব্যাপারটা হল, যেন ফুটবল খেলাটার জয় হয়। কিন্তু আজও সেই বদলার মনোভাব ফুটবলটাকে জিততে দিল না। আমি অবাক হয়ে শুনছিলাম ওর কথা। ফুটবলের প্রতি কতটা ভালবাসা থাকলে মানুষ এমন কথা বলতে পারে।

Advertisement

নিমেষের মধ্যে সে আমাদের মোহনবাগানের পতাকাটা নিয়ে দৌড়ে চলে গেল। তার পরে দেখি ইস্টবেঙ্গলের অন্ধ ভক্ত গুড্ডু মোহনবাগানের পতাকাটা দু’হাতে ধরে সুপারম্যানের মতো বৃষ্টির জল ভেদ করে দৌড়ে আসছে। তার মুখে এক স্নিগ্ধ, প্রাণবন্ত, সরল হাসি।

তবে সে হাসিতে কোন শ্লেষ ছিল না। ছিল একটা যুদ্ধ জয়ের আনন্দ। সেই মুহুর্তে ফুটবল খেলাটা জিতেছিল।

এই প্রতিবেদনটি ‘আষাঢ়ের গল্প’ কনটেস্ট থেকে সংগৃহীত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement