• সংবাদ সংস্থা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বালিয়া-খুনে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে মামলা

Murder
প্রতীকী ছবি।

রেশনের ডিলারশিপ বণ্টন নিয়ে এক বৈঠকে উত্তরপ্রদেশের বালিয়ায় এক ব্যক্তিকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে জাতীয় নিরাপত্তা আইন ও দুষ্কৃতী বিরোধী আইনে মামলা হবে বলে শনিবার জানাল পুলিশ। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বিজেপি নেতা ধীরেন্দ্র সিংহকে অবশ্য এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবারের এই ঘটনায় আট জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। ২ জন গ্রেফতার হলেও ওই বিজেপি নেতা-সহ ছ’জনকে খুঁজছে পুলিশ। অভিযুক্তদের সন্ধান দিতে পারলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। নিজেদের তরফে গাফিলতের কথা স্বীকার করে ন’জন কর্মীকে সাসপেন্ড করেছে রাজ্য পুলিশ।

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার শীর্ষস্তরের প্রশাসনিক কর্তাদের তত্ত্বাবধানে ওই রেশনের ডিলারশিপ বণ্টন নিয়ে বৈঠক চলাকালীন দুই গোষ্ঠীর মধ্যে হঠাৎ বিবাদ শুরু হয়। তখনই বিজেপি নেতা ধীরেন্দ্র প্রতাপ সিংহ গুলি চালান। তার গুলিতে জয়প্রকাশ নামে বছর পঁয়তাল্লিশের এক ব্যক্তি নিহত হন। একটি ভিডিয়োতে আবার ধীরেন্দ্র সিংহকে বলতে শোনা গিয়েছে, তিনি পুলিশ-প্রশাসনকে আগেই অনুরোধ করেছিলেন বৈঠকে পুলিশকর্মী মোতায়েনের জন্য। তাদের জন্যই বৈঠক চলাকালীন পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যায়। বিবাদে তার পরিবারেরই এক জনের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে ওই বিজেপি নেতা। 

ধীরেন্দ্র আরও বলেছে, সে ১৮ বছর সেনাবাহিনীতে কাজ করেছে। ও দিন ঝামেলা শুরু হওয়ায় নিজের পরিবারের লোকদের বাঁচানোর চেষ্টা করেছিল সে। তবে সে দিন সে গুলি চালায়নি বলে দাবি তার। ধীরেন্দ্রর ভাই নরেন্দ্র প্রতাপ সিংহ এবং দেবেন্দ্র প্রতাপ সিংহকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অভিযুক্তদের ধরতে ১২টি দল গঠন করে তল্লাশি অভিযানে নেমেছে পুলিশ। অন্য দিকে, এ রাজ্যেরই ফিরোজ়াবাদ জেলায় তিন দুষ্কৃতীর গুলিতে দয়াশঙ্কর গুপ্তা নামে এক বিজেপি নেতা নিহত হয়েছেন গত রাতে। এই ঘটনায় বিজেপিরই অন্য দুই কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন