একটি কূপ থেকে তিনটি শিশুর গুলিবিদ্ধ দেহ উদ্ধার হল উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই তিনটি শিশুর খোঁজ মিলছিল না। পুলিশ জানিয়েছে, ওই তিনটি শিশু আসমা (৮), আলিবা (৭) ও আবদুল্লার (৮) দেহগুলি শনিবার সকালে একটি নলকূপ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত শিশুদের পরিবারগুলি একে অন্যের আত্মীয়। পুলিশের সন্দেহ, পারিবারিক বিরোধই এই ঘটনার কারণ।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, গত কাল সন্ধ্যায় ওই তিনটি শিশু তাদের বাড়ির কাছেই খেলা করছিল। ওই সময়েই তারা হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যায়।

পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, খোঁজ-তল্লাশির পর তিনটি শিশুকে না পেয়ে তাঁরা থানায় অভিযোগ জানাতে যান। কিন্তু বুলন্দশহর পুলিশ স্টেশন তাঁদের লিখিত অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে। অস্বীকার করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে এফআইআর করতেও।    

পুলিশ জানিয়েছে, এ দিন সকালে তিনটি শিশুর দেহ উদ্ধার করা হয় তাদের বাড়ি থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে, ধাতুরি গ্রামের একটি কূপে। তিনটি দেহই পাঠানো হয়েছে ময়না তদন্তের জন্য। শুরু হয়েছে পুলিশি তদন্তও।

আরও পড়ুন- আমি মুখ্যমন্ত্রী পদ ছেড়ে দিতে চেয়েছিলাম, দল মানল না: মমতা

আরও পড়ুন- বহু মুসলিমপ্রধান আসনেও সাফল্য এসেছে বিজেপির, জানেন?​

বুলন্দশহরের এসএসপি এন কোলাঞ্চি পুলিশি গাফিলতির কথা স্বীকার করেছেন। বলেছেন, ‘‘নগর কোতোয়ালি এসএইচও এবং মুন্সিকে সান্সপেন্ড করা হয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তাঁরা যথাযথ শাস্তি পাবেন। প্রধান অভিযুক্ত সলমন মালিকের খোঁজে নেমে পড়েছে পুলিশ।’’