পেটে টান পড়লে পুলিশের নজর কাড়ত পিকে। যেন তেন প্রকারে জায়গা জুটিয়ে নিত গারদে। ২০১৪ সালে সিনেমার পর্দায় এমনই চরিত্র ফুটিয়ে তুলেছিলেন অভিনেতা আমির খান। এ বার বাস্তবেও এমন এক পিকের হদিশ মিলল তামিলনাড়ুতে। জেলের খাবার এবং বন্ধুদের টানে স্বেচ্ছায় হাজতে ঢুকল এক চোর

ওই ব্যক্তির নাম জ্ঞাননপ্রকাশম। বয়স ৫২ বছর। চুরির দায়ে গত মার্চ মাসে চেন্নাইয়ের পুঝাল জেলে ঠাঁই হয়েছিল। তিন মাস সাজা কেটে ২৯ জুন জামিন পায় সে। কিন্তু ছাড়া পেলে কী হবে, জেলের বাইরে কিছুতেই মন টিকছিল না জ্ঞাননপ্রকাশমের। কষ্ট করে পেট চালানো একাবারেই পোষাচ্ছিল না। তার উপর জেলের বন্ধুদের কথাও মনে পড়ছিল খুব। তাই ফন্দি এঁটে ফেলে সে।

সেই মতো দিন কয়েক আগে সিসিটিভি বসানো পশ্চিম তাম্বরমের কৈলাসপুরম ফার্স্ট স্ট্রিটে পৌঁছয় জ্ঞাননপ্রকাশম। সেখান থেকে প্রথমে একটি মোটর সাইকেল চুরি করে। তার পর মাঝে মধ্যেই হানা দিতে শুরু করে সেখানকার পার্কিং এলাকায়। সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ি থেকে তেল চুরি করে চুরি করা ওই মোটরসাইকেলে ভরতে শুরু করে। আর গোটা চুরিটাই সে সারে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে, যাতে তাকে চিনতে বিন্দুমাত্র অসুবিধা না হয় পুলিশের।

আরও পড়ুন: শুনানি পিছোল সুপ্রিম কোর্ট, কর্নাটকে মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় পেল কংগ্রেস-জেডিএস​

তেল চুরি করার সময়ই সম্প্রতি স্থানীয় লোকজনের হাতে ধরা পড়ে যায় জ্ঞাননপ্রকাশম। গ্রেফতার করে তাকে জেলে নিয়ে যায় পুলিশ। জেরায় নিজেই যাবতীয় চুরির কথা জানায় সে। বিষয়টি নিয়ে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেন অ্যাসিস্ট্যান্ট পুলিশ কমিশনার পি অশোকান। তিনি জানান, ‘‘বাড়ির লোক যত্নআত্তি করছিল না। তাই ঘরে মন টিকছিল না জ্ঞাননপ্রকাশমের।’’ অলস বলে খোঁটা দেওয়া, খেপানোর কেউ ছিল না, বলেও সে পুলিশকে জানায় বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: পুলিশ দাঁড়িয়ে! তা-ও হুমকি,ধাক্কা ব্যবসায়ীকে, মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে ফোন গেল থানায়​

পুলিশ সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর স্ত্রী এবং ছেলে মেয়েরা সারা ক্ষণ গঞ্জনা দিত। তিন বেলা পেট ভরে খাবারও জুটছিল না। সুখ-দুঃখের গল্প করা হচ্ছিল না বন্ধুদের সঙ্গে। তাতেই তিতিবিরক্ত হয়েই জেলে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন জ্ঞাননপ্রকাশম।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।