প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হেনস্থার মামলায় আজ সুপ্রিম কোর্টের তিন সদস্যের ইন-হাউস তদন্ত কমিটির সামনে হাজিরা দিলেন অভিযোগকারিণী। সূত্রের খবর, সেখানে সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল সেক্রেটারিও ছিলেন। তবে শুনানির সময়ে বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন কমিটির সামনে চেম্বারে ছিলেন শুধুই সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন ওই মহিলা কর্মী তথা অভিযোগকারিণী।

প্রধান বিচারপতি গোড়া থেকেই তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছেন। প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ আনেন উৎসব সিংহ বইন্স নামের এক আইনজীবী। যা নিয়ে গত মঙ্গলবার বিশেষ বৈঠকে বসেছিলেন শীর্ষ আদালতের বিচারপতিরা। অনুপস্থিত ছিলেন শুধু প্রধান বিচারপতি। সেই বৈঠকেই তিন সদস্যের প্যানেল গঠিত হয়। 

বিচারপতি বোবদে ছাড়া গোড়ায় তাতে ছিলেন বিচারপতি এনভি রমানা ও বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু বিচারপতি রমানাকে নিয়ে আপত্তি তোলেন খোদ অভিযোগকারিণী। তাঁর দাবি, বিচারপতি রমানা প্রধান বিচারপতি গগৈয়ের ঘনিষ্ঠ বন্ধু এবং পরিবারের সদস্যের মতো। এতে তদন্তে প্রভাব পড়ার কথা মানতে না চাইলেও প্যানেল থেকে সরে দাঁড়ান বিচারপতি রমানা। বৃহস্পতিবার প্যানেলে আসেন বিচারপতি ইন্দু মালহোত্র। বিশাখা নির্দেশিকা মোতাবেক তিন সদস্যের প্যানেলে দু’জন মহিলা সদস্য চেয়েও দরবার করেন অভিযোগকারিণী। আজকের শুনানিতে অভিযোগকারিণীর আইনজীবীকেও বিশেষ কক্ষের বাইরে রাখা হয়েছিল। কোর্ট জানিয়েছে আগামী শুনানির দিন শীঘ্রই নির্ধারিত হবে। 

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯