রাজনৈতিক পালাবদলের নাটক অব্যাহত রেখে অরুণাচল প্রদেশে ফের ক্ষমতা হারাল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু-সহ কংগ্রেসের ৪৫ জন বিধায়কই দল ছেড়ে যোগ দিলেন বিজেপি-র সঙ্গী পিপলস পার্টি অব অরুণাচলে। দলে থেকে গেলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নাবাম টুকি। আপাতত তিনিই রাজ্যে কংগ্রেসের একমাত্র বিধায়ক। শেষ ন’মাসে এই নিয়ে তৃতীয় বার ক্ষমতার পালাবদল ঘটল উত্তর পূর্বের ছোট্ট এই রাজ্যে।

৬০ আসনের অরুণাচল বিধানসভায় কংগ্রেসের ৪৭ জন এবং বিজেপির ১১ জন বিধায়ক রয়েছেন। বাকি দু’জন নির্দল। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে কংগ্রেসের ১৮ জন বিদ্রোহী বিধায়ককে নিয়ে সরকার গঠন করেন কালিখো পুল। সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন করেন বিজেপির ১১ জন বিধায়ক।

মাস দু’য়েক আগে কালিখো পল সরকারকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করে নাবাম টুকিকে মুখ্যমন্ত্রী পদে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু টুকির আস্থাভোটে হার নিশ্চিত বুঝে কংগ্রেস তাঁর বদলে পেমা খান্ডুকে মুখ্যমন্ত্রী করার সিদ্ধান্ত নেয়। গত ১৬ জুলাই পেমাকে নেতা করে ফের কংগ্রেস সরকার ফেরে অরুণাচলে।

আরও পড়ুন...
কোনও ঝামেলাই হয়নি শিবপাল-অখিলেশের মধ্যে: মুলায়ম

পেমা মুখ্যমন্ত্রী হলেও, তারপর বেশ কিছু দিন মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন ছিল কালিখো পুলের দখলেই। গত ৯ অগস্ট সেই বাসভবনেই ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় পুলের মৃতদেহ।

কিন্তু কংগ্রেসের অন্দরে যে আবারও এক নাটকের প্রস্তুতি চলছে তা কিছু দিন আগেও বোঝা যায়নি। আজ আচমকাই ৪৫ বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে কংগ্রেস ছেড়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু। যোগ দিলেন বিজেপির বন্ধু দল পিপলস পার্টি অব অরুণাচলে। সূচনা হল নতুন নাটকের।